বেড়াতে এসে করোনা যোদ্ধারা পরিষ্কার করলেন সৈকতের বর্জ্য

বেড়াতে এসে করোনা যোদ্ধারা পরিষ্কার করলেন সৈকতের বর্জ্য
কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচিতে অংশ নেন করোনা আইসোলেশন সেন্টার চট্টগ্রামের শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক।

বেড়াতে এসে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকতে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন করোনা আইসোলেশন সেন্টার চট্টগ্রামের শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক।

রবিবার বিশ্ব পর্যটন দিবসের বিকেলে বালিয়াড়িতে হাটতে গিয়ে বিভিন্ন ধরনের আবর্জনা দেখে তা পরিস্কারে নেমে যান করোনা আইসোলেশন সেন্টার চট্টগ্রামের চিকিৎসক, নার্স এবং করোনা সম্মুখ যুদ্ধে অংশ নেয়া স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ঝাঁক স্বেচ্ছাসেবক।

এসময় অতিমাত্রায় বোতল, প্লাস্টিকসহ অপচনশীল পদার্থ কক্সবাজার সৈকতে ভেসে আসা বিপুল পরিমাণ বর্জ্য জড়ো করেন তারা।

করোনা আইসোলেশন সেন্টার চট্টগ্রামের প্রধান সমন্বয়ক নুরুল আজিম রনি বলেন, করোনা প্রতিরোধে নানা বয়সী এক ঝাঁক মানুষ যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়ে কাজ করেছি। দীর্ঘদিন কাজ করতে গিয়ে পেয়ে বসা একগুঁয়েমি কাটাতে কক্সবাজার সৈকতে বেড়াতে আসা। বালিয়াড়িতে হাটতে গিয়ে দেখি ভেসে আসা নানা ধরণের বর্জ্য সৈকতকে দূষিত করেছে। এসব বর্জ্যের বেশিরভাগই বোতলজাত ও প্লাস্টিক দ্রব্য। কক্সবাজার সৈকত আমাদের জাতীয় সম্পদ। এটি রক্ষার দায়িত্ব সবার। পর্যটকদের উচিত নির্দিষ্ট স্থানে ময়লা ফেলা। পরিচ্ছন্নতার মাধ্যমে বিশ্ব দরবারে দেশের পর্যটন শিল্পকে কার্যকরভাবে তুলে ধরা দরকার।

কোভিড-১৯ মহামারির ধাক্কায় সবচেয়ে বিপর্যস্ত খাত হিসেবে অনিশ্চয়তার সামনে দাঁড়িয়ে এ বছর পর্যটন দিবস পালিত হয়। জাতিসংঘের বিশ্ব পর্যটন সংস্থা এ বছর দিবসটির মূল প্রতিপাদ্য নির্ধারণ করে ‘পর্যটন ও গ্রামীণ উন্নয়ন’।

পরিচ্ছন্নতা অভিযানে ডা. হাসিবুল ইসলাম, ডা. সাদ্দাম হোসেন, ডা. রাসেল, সেবিকা সায়মা আক্তার, স্বেচ্ছাসেবক টিম লিডার মিজানুর রহমান মিজান, ঐশিক পাল জিতু, শিহাব আলি চৌধুরী, অমিত চক্রবর্ত্তী, মোহাম্মদ আরিফ উদ্দীন, রায়হান উদ্দীন, যুবরাজ দাস, নাহিদুল আলম, জামশেদুল ইসলাম, মোহাম্মদ রাকিব, শাহাদাত হোসাইন, মহসিন কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মায়মুন উদ্দীন মামুন প্রমুখসহ শতাধিক স্বেচ্ছাসেবক অংশনেন ।

অপরদিকে, সৈকত পরিষ্কার শেষে একই দিনগত রাত ১২টা ০১ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটেন চট্টগ্রামের এ করোনা যোদ্ধা টিম। হোটেল-মোটেল জোনের আবাসিক এক হোটেলের সম্মেলন কক্ষে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিম রনির নেতৃত্বে তারা এ কেক কাটা অনুষ্ঠান পালন করেন। কেক কাটা শেষে প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনায় মোনাজাতও করা হয়।

ইত্তেফাক/এমআরএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত