সিলেট-চট্টগ্রাম বিমানের ফ্লাইট চালুর দাবি

সিলেট-চট্টগ্রাম বিমানের ফ্লাইট চালুর দাবি
সিলেট-চট্টগ্রাম ফ্লাইট চালুর দাবি।ছবি: সংগৃহীত

সিলেট চেম্বারের সাবেক সভাপতি ও এফবিসিসিআইর বর্তমান পরিচালক সিলেটের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী খন্দকার সিপার আহমদ সিলেট-চট্টগ্রাম ফ্লাইট চালুর দাবি জানিয়েছেন। তিনি বলেন, সিলেট-চট্টগ্রাম সরাসরি বিমানের ফ্লাইট চালুর বিষয়টি সিলেট ও চট্টগ্রামের ব্যবসায়ীদের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল।

এর কারণ হিসাবে তিনি বলেন, চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর ব্যবহার করে আমদানি রপ্তানিসহ ব্যবসা বাণিজ্য প্রসারে সরাসরি ফ্লাইট বিরাট ভূমিকা রাখবে। সেই সাথে চট্টগ্রাম ও সিলেটের ব্যবসায়ীদের সাথে সেতুবন্ধন রচিত হবে।

এদিকে সিলেট-কক্সবাজার রুটে সরাসরি বিমানের ফ্লাইট চালুর উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন ব্যবসায়ী নেতা খন্দকার সিপার আহমদ।বিমানের ফ্লাইট চালু করার উদ্যোগ নেওয়ায় সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন ও বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন সিপার আহমদ।

আগামী ১২ নভেম্বর থেকে পূণ্যভূমি সিলেট ও পর্যটন নগরী কক্সবাজারের মধ্যে বিমানের ফ্লাইট চালুর কথা রয়েছে। এর মাধ্যমে সিলেটবাসীর দীর্ঘদিনের আকাঙ্ক্ষা পূরণ হয়েছে উল্লেখ করে খন্দকার সিপার বলেন, বিশ্বের দীর্ঘতম সমুদ্র সৈকত ও পর্যটন এলাকা কক্সবাজারে ভ্রমণে প্রবাসী অধ্যুষিত সিলেটবাসীর স্বপ্ন পূরণ হতে যাচ্ছে। আকাশ পথে যোগাযোগ ব্যবস্থা সহজ হবার ফলে সিলেট ও কক্সবাজারের পর্যটন শিল্পের উন্নয়ন ঘটবে। তাছাড়া, সিলেটের প্রবাসী পর্যটক এবং পার্শ্ববর্তী দেশের পর্যটকরাও সিলেটের ফ্লাইটে কক্সবাজার ভ্রমণে উৎসাহিত হবেন।

আরও পড়ুন: লঙ্ঘিত হচ্ছে ব্যক্তির গোপনীয়তার অধিকার

এ প্রসঙ্গে খন্দকার সিপার উল্লেখ করেন, তিনি চেম্বারের সভাপতি থাকাকালে ২০১৮ সালের ১৭ নভেম্বর চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (সিসিসিআই) সভাপতি মাহবুবুল আলমের উপস্থিতিতে দুই চেম্বারের যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় সিলেট-কক্সবাজার ভায়া চট্টগ্রাম ফ্লাইট চালুর দাবি জানানো হয়েছিল।

সভায় উভয় চেম্বার নেতৃবৃন্দ ঐক্যমত পোষণ করে এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, চট্টগ্রাম-সিলেট বিমানের ফ্লাইট চালু হলে যোগাযোগ যেমন সহজ হবে; তেমনিভাবে ব্যবসা বানিজ্যও সম্প্রসারিত হবে। বর্তমান প্রেক্ষাপটে এই ফ্লাইট চালুর বিষয়টি এখন গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠেছে।

বিবৃতিতে সিলেট-কক্সবাজার ফ্লাইটকে ভায়া চট্টগ্রাম করে চালু অথবা আলাদাভাবে সিলেট-চট্টগ্রামে সপ্তাহে অন্তত ৩ দিন বিমান অথবা বেসরকারি এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট চালুর বিষয়টি বিবেচনা করার জন্য সিলেটের দুই কৃতিসন্তান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিমান প্রতিমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি তিনি অনুরোধ জানান।

উল্লেখ্য,সিলেট চেম্বারের উদ্যোগ ও দাবির প্রেক্ষিতে সিলেট-ঢাকা সান্ধ্যকালীন ফ্লাইট চালু হওয়ায় সিলেটিদের যোগাযোগ সহজ, ব্যবসা বাণিজ্যের প্রসার ও যাত্রীসংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে।

ইত্তেফাক/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত