এক আদর্শ চোরের গল্প

এক আদর্শ চোরের গল্প
চোরের লিখে যাওয়া চিরকুট। ছবি-ইত্তেফাক

দোহার উপজেলার কার্তিকপুর বাজারের এক মোবাইলের দোকানে চুরির ঘটনা ঘটেছে। বুধবার রাতের কোনো একসময় ওই বাজারের মিজান এন্টারপ্রাইজ নামে একটি দোকানে এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার সকালে দোকানে প্রবেশ করে দোকান মালিক একটি চিরকুট পান।

চোরের লিখে যাওয়া ওই চিরকুটে লেখা ‘তোমার দোকানের ক্ষতি না করে একটি ‘ভিভো’ মোবাইল নিলাম। আমার কাছে টাকা নাই। পরে কমিয়ে কমিয়ে দিয়ে যাব। ক্ষমা করবেন।’ এ ধরনের ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

দোকানের মালিক মিজান জানান, বুধবার রাতে দোকানে তালা লাগিয়ে তিনি চলে যান। পরে বৃহস্পতিবার সকালে দোকানে এসে দেখেন দোকানের উপরের সিলিং ও টিন কাটা। তিনি ধারণা করেন হয়তো তার দোকানের সব মালামালই চোরে নিয়ে গেছে। এক পর্যায়ে দেখতে পান ক্যাশের ওপর চিরকুট পড়ে রয়েছে। সাথে ৩০০ টাকা। চিরকুট পড়ার পরে অনেকটাই হতবাক হয়ে যান। তবে চোর ভিভো ওয়াই-৩০ মডেলের ডেমো মোবাইল সেট নিয়ে গেছে।

বিষয়টি বাজারের অন্যান্য ব্যবসায়ীরা জানার পর অনেকে অনেক ধরনের মন্তব্য করছেন। চোরের হয়তো একটি অ্যানড্রুয়েট মোবাইল প্রয়োজন ছিলো তাই চুরি করতে এসেছিল। আবার কেউ কেউ বলছেন চোর মশাই হয়তো প্রেমে পড়েছেন তাই প্রেমিকাকে উপহার দেওয়ার জন্য এমন কাণ্ড করেছেন। চোর হলেও নিতান্তই সৎ!

ইত্তেফাক/আরকেজি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত