কক্সবাজারে পর্যটন ব্যবসায়ী বিএনপি নেতা শফির মৃত্যু

কক্সবাজারে পর্যটন ব্যবসায়ী বিএনপি নেতা শফির মৃত্যু
মোহাম্মদ শফি ।

কক্সবাজার জেলা রেস্তোরাঁ মালিক সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক কলাতলী হোটেল-মোটেল জোনের পর্যটনসেবী 'ফ্রেশ ইন রেস্তোরাঁ'র মালিক মোহাম্মদ শফি স্ট্রোকে মৃত্যু বরণ করেছেন।

বৃহস্পতিবার চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে তিনি কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আইসিইউতে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

মোহাম্মদ শফি কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও থানা বিএনপি’র আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করছিলেন। শুক্রবার বেলা সাড়ে ১০ টায় ঈদগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন মৃতের ছোট ভাই স্কুল শিক্ষক নুরুল আমিন হেলালী।

পর্যটনসেবী ও বিএনপি নেতা মোহাম্মদ শফি (৪৬) সদর উপজেলার ঈদগাঁও ইউনিয়েনের দক্ষিণ মাইজপাড়ার মৃত হাজী মোঃ ইসলাম ও মরহুমা ছকিনা খাতুনের দ্বিতীয় সন্তান।

নুরুল আমিন হেলালী জানান, কেন্দ্রীয় নির্দেশনায় গত পক্ষকাল ধরে বৃহত্তর ঈদগাঁওয়ের ইউনিয়নগুলোতে বিএনপির কমিটি গঠন নিয়ে মাঠ চষে বেড়াচ্ছিলেন পর্যটন ব্যবসায়ী মোহাম্মদ শফি। বুধবার দিনেও রাজনৈতিক প্রোগ্রাম শেষে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে সময় দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার ফজরের নামাজের পর হঠাৎ অসুস্থবোধ করেন তিনি। কথা বলতে বলতে অজ্ঞান হয়ে পড়লে তাকে দ্রুত কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসকরা তিনি স্ট্রোক করেছেন জানিয়ে তৎক্ষণাত তাকে সিসিইউ-তে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে তিনি মৃত্যুর কূলে ঢলে পড়েন।

মোহাম্মদ শফি স্ত্রী, ২ ছেলে ও ৩ মেয়েসহ অসংখ্য অনুসারী এবং গুণগ্রাহী রেখে যান। ঈদগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জানাজা শেষে তাকে দক্ষিণ মাইজপাড়া বড় কবরস্থানে মাতা-পিতার কবরের পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হবে।

এদিকে, বিএনপি নেতা শফির মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে বিবৃতি দিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও কক্সবাজার সদর আসনের বিএনপির সাবেক সাংসদ, কেন্দ্রীয় মৎস্যজীবী বিসয়ক সম্পাদক লুৎফুর রহমান কাজল। বিবৃতিতে তারা বলেন, মোহাম্মদ শফির মৃত্যু বিএনপির তৃণমূলে চরম ক্ষতি হয়েছে। তবে, তার কর্মকান্ডগুলোকে অনুপ্রেরণা হিসেবে নিবে নেতা-কর্মীরা এমনটি বিশ্বাস কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের। তারা মরহুম শফির শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

ইত্তেফাক/এমআরএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত