রংপুরে ৬০ লাখ টাকার নকল ব্যান্ডরোল সরঞ্জাম উদ্ধার, সক্রিয় সিন্ডিকেট ধরতে মাঠে পুলিশ

রংপুরে ৬০ লাখ টাকার নকল ব্যান্ডরোল সরঞ্জাম উদ্ধার, সক্রিয় সিন্ডিকেট ধরতে মাঠে পুলিশ
রংপুরে নকল ব্যান্ডরোলসহ আটক তিন ব্যক্তি। ছবি: ইত্তেফাক

রংপুর মহানগরীর সিওবাজার এলাকায় বেসরকারি বিনোদন স্পট ভিন্নজগত কর্তৃপক্ষের মালিকানাধীন নকল সরকারি ব্যান্ড রোল তৈরির ছাপাখানার সন্ধান পেয়েছে পুলিশ। ছাপাখানাটির নাম এসকে প্রেস এন্ড প্যাকেজিং। সিগারেট ও বিড়ির প্যাকেটে লাগানোর উদ্দেশ্যে ছাপানো প্রায় ৬০ লাখ টাকার নকল ব্যান্ড রোল উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (১৯ নভেম্বর) রাতে রংপুর মহানগরীর হারাগাছ থানার নিউ সাহেবগঞ্জ মজুমদার রহমানের আলুর গোডাউনের সামনে থেকে ব্যাটারি চালিত অটো রিকশায় অভিযান চালিয়ে এই নকল ব্যান্ডরোল উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় গ্রেফতার করা হয়েছে বিনোদন স্পট ভিন্ন জগতের মালিক কামাল হোসেনের ছেলে তৌফিক হাসান তপুসহ তিনজনকে।

এদিকে শুক্রবার থানা হাজতে গ্রেফতারদের মধ্যে অপুকে হাজতখানায় না রেখে দিনভর রাখা হয়েছে ওসির রুমে। সন্ধ্যায় তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও এ বিষয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ের কথা থাকলেও মহানগর পুলিশ জানায় কমিশনার ও ডিসি ক্রাইমের নির্দেশে তা স্থগিত করা হয়েছে।

এদিকে পুলিশ নকল সরকারি ব্যান্ড রোল তৈরির ছাপাখানা এসকে প্রেস এন্ড প্যাকেজিং পুলিশ সিলগালা করে না দেওয়ায় অভিজ্ঞ মহল ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। অভিযোগ উঠেছে, এই প্রেস থেকে নকল সরকারি ব্যান্ড রোল তৈরি করে দেশের বিভিন্ন স্থানের সিগারেট ও বিড়ি কারখানায় সরবরাহ করা হচ্ছে। বিশেষ একটি সূত্র জানায়, রংপুর জেলায় শতাধিক অফসেট প্রেস রয়েছে। এই প্রেসগুলোতে প্রশাসনের তদারকি কখনও লক্ষ্য করা যায়নি। এই সুযোগে চলছে বিভিন্ন অবৈধ মুদ্রণ কাজ।

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার (মাহিগঞ্জ জোন) মো. আল ইমরান হোসেন জানান, উদ্ধার করা ব্যান্ডরোলের গায়ে বিড়ি শুল্ক কর জাতীয় রাজস্ব বোর্ড গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার লেখা আছে। এসময় সিগারেট কোম্পানি এলাকার ওই অটো চালক আতিকুল ইসলাম আতিককে (৫২) গ্রেফতার করে। পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে ব্যান্ডরোল তৈরির ছাপাখানার সন্ধান পাওয়া যায়। পরে নগরীর সিও বাজার এলাকায় অবস্থিত এসকে প্রেস এন্ড প্যাকেজিং নামের ওই ছাপাখানায় রাতে অভিযান চালায় সেখান থেকে নকল ব্যান্ডরোল তৈরির প্লেটসহ বিভিন্ন সরঞ্জামাদি উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতার করা হয় ছাপাখানার মালিক তৌফিক হাসান তপুকে (৪০)। পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদে মমিনুল ইসলাম নামের আরও একজনকে গ্রেফতার করা হয়। মমিনুল বালুগড়া এলাকার নুরু মিয়ার ছেলে।

পুলিশ আরও জানায়, জিজ্ঞাসাবাদে তপু জানিয়েছেন তাদের মালিকানাধীন ছাপাখানা এসএস প্রেস এন্ড প্যাকেজিংটি তারা হারাগাছের বালাটারি রামেগোবিন্দ এলাকার সিরাজুল ইসলামের ছেলে রবিউল ইসলাম রুবেলকে (৩০) ভাড়া দিয়েছেন।

আরও পড়ুন: বদলে গেলো অপরাজেয় সেই খুকির জীবন

এদিকে পুলিশের সূত্র জানিয়েছে, এসএস ছাপাখানাসহ নগরীর আরও বেশ কয়েকটি ছাপাখানায় দীর্ঘদিন ধরে কাস্টমসকে ম্যানেজ করে রংপুরের হারাগাছ বিড়ি শিল্প নগরীর বিড়ি ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে নকল ব্যান্ডরোল তৈরি করে সরকারকে প্রতি বছর হাজার হাজার কোটি টাকা রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে আসছেন। নকল ব্যান্ডরোল ব্যবহারকারী জড়িত সিন্ডিকেটের সদস্যদের গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

এদিকে ভিন্নজগতরে মালিকের পক্ষ থেকে বিভিন্নভাবে তপুকে পুলিশের কাছে থেকে ছাড়িয়ে নিতে জোড় চেষ্টা ও তদবির চলছে বলেও জানা গেছে। এ ঘটনায় রংপুর মেট্রোপলিটন হারাগাছ থানায় মামলা হয়েছে।

ইত্তেফাক/এসি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত