মির্জাপুরে মলম পার্টির ৬ সদস্য আটক

মির্জাপুরে মলম পার্টির ৬ সদস্য আটক
আটককৃত মলম পার্টি চক্রের ৬ সদস্য [ছবি: ইত্তেফাক]

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরের ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক থেকে আন্তঃজেলা মলম পার্টি চক্রের ৬ সক্রিয় সদস্যকে বিভিন্ন উপকরণসহ আটক করেছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের দুই দিনের রিমান্ডে আনা হয়েছে।

মির্জাপুর থানার উপ পুলিশ পরিদর্শক আবুল বাশারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ গতকাল শুক্রবার ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের মির্জাপুরের বাইপাস এলাকা থেকে তাদের আটক করে। এরা হচ্ছে- গাজীপুরের দক্ষিণ শালনা এলাকার সমশের আলী (৪৮), মানিকগঞ্জের ঘিওর এলাকার সোহেল রানা (৩৭), লিটন মিয়া (৩২), নোয়াখালীর সেনবাগ এলাকার শাহাদত হোসেন (৪৫), হারুন অর রশিদ (৪০) এবং জামালপুরের নুরুল ইসলাম (৪৫)।

মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সায়েদুর রহমান বলেন, গ্রেফতারকৃতরা আন্তঃজেলা মলম পার্টি চক্রের সক্রিয় সদস্য। বিভিন্ন কৌশলে ফেরিওয়ালা সেজে আচার, চাটনি ও লজেন্সের সঙ্গে নেশা জাতীয় দ্রব্য মিশিয়ে বিক্রি করে যাত্রীদের সঙ্গে প্রতারনা করে অচেতন করে নগদ টাকাসহ মালামাল লুটে নিত। তাদের ৭ দিনের রিমান্ডে চেয়ে আদালতে পাঠানো হলে বিচারক দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। সম্প্রতি ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্ট থেকে ১০ জন আন্তঃজেলা ডাকাত ও ছিনতাইকারী গ্রেফতার হয়েছে।

অপর দিকে গোড়াই হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ মো. মোজাফ্ফর হোসেন জানান, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের চন্দ্রা, বাইপাইল, নবীনগর, কোনাবাড়ি, আশুলিয়া, জয়দেবপুর, উত্তরা, মহাখালী ও গাবতলী থেকে অপরাধীরা নানা কৌশলে যাত্রীদের জিম্মি করে বাস ডাকাতি, ছিনতাই ও অপহরণ করে আসছে। এছাড়া মলম পার্টির খপ্পরে পরে সর্বস্বান্ত হচ্ছে নিরীহ যাত্রীরা। যাত্রীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এবং ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে অপরাধীদের ধরতে পুলিশ নিরন্তর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

উল্লেখ্য, চন্দ্রা থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু পর্যন্ত প্রায় ৮০ কি. মি. এলাকায় আন্তঃজেলা ডাকাত, ছিনতাইকারী ও অপহরণকারী চক্রের নিরাপদ জোনে পরিণত হয়েছে এমন অভিযোগ দীর্ঘ দিনের। গত ১৫ নভেম্বর দৈনিক ইত্তেফাকে মির্জাপুরে সক্রিয় আন্তঃজেলা অপরাধী চক্র, অতিষ্ঠ যাত্রীরা, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক- শীর্ষক একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদন প্রকাশের পর থেকেই আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা নড়েচড়ে বসে। অপরাধীদের ধরতে মহাসড়কের বিভিন্ন পয়েন্টে চেকপোস্ট ও অভিযান জোরদার করা হয়েছে।

ইত্তেফাক/এমআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত