মাগুরায় স্বামীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে স্ত্রীকে গণ-ধর্ষণ 

মাগুরায় স্বামীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে স্ত্রীকে গণ-ধর্ষণ 
মাগুরায় স্বামীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে স্ত্রীকে গণ-ধর্ষণ। প্রতীকী ছবি

মাগুরায় স্বামীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে (৪৪) গণ-ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। শনিবার রাতে মাগুরা সদর উপজেলার জাগলা গ্রামের একটি মাঠে এ ঘটনা ঘটে। রবিবার বিকালে অজ্ঞাত পাঁচজনকে আসামি করে মাগুরা সদর থানায় মামলা দায়ের করেছে নির্যাতনের শিকার ওই নারী।

এ বিষয়ে নির্যাতিতার স্বামী জানান, তাদের বাড়ি ঝিনাইদহ জেলায়। তিনি ও তার স্ত্রী ধান মৌসুমে বিভিন্ন গ্রামে গ্রামে গিয়ে ঘোড়ার গাড়ির মাধ্যমে মাঠের ধান সংগ্রহ করে কৃষকের বাড়িতে পৌঁছে দেন। বিনিময়ে কৃষকরা যে ধান দেন তাই দিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন । এই কাজেরই ধারাবাহিকতায় ২০ দিন আগে চলতি আমন মৌসুমে তারা এ কাজের জন্য নিজ জেলা ঝিনাইদহ থেকে মাগুরা সদর উপজেলার জাগলা গ্রামে আসেন। নিজের কোন থাকার জায়গা না থাকায় জাগলা এলাকার মাঠে পলিথিনের তাবু খাটিয়ে বসবাস করছিলেন তারা।

শনিবার রাতে অপরিচিত পাঁচজনের একটি সংঘবদ্ধ চক্র ধারালো অস্ত্র নিয়ে তাদের তাবুতে ঢুকে পড়ে। পরে ধারালো অস্ত্রের মুখে তাকে জিম্মি করে একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে তার স্ত্রীকে পার্শ্ববর্তী একটি পুকুরের পাড়ে নিয়ে ধর্ষণ করে। এ সময় ধর্ষকরা তাদের কাছে থাকা পাঁচ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় এবং এ ঘটনা কাউকে না জানানোর হুমকি দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে তাদের চিৎকারে এলাকার লোকজন সেখানে এসে তাদের উদ্ধার করে। পরে পুলিশের সহযোগিতায় ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য রবিবার তার স্ত্রীকে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নেয়া হয়।

মাগুরা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ জয়নাল আবেদীন জানান, ধর্ষিতার ডাক্তারি পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ মাগুরা সদর থানায় অজ্ঞাতনামা পাঁচজনকে আসামি করে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছেন। আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত