একশ শয্যায় উন্নতি হবে ভাঙ্গা হাসপাতাল: নিক্সন চৌধুরী

একশ শয্যায় উন্নতি হবে ভাঙ্গা হাসপাতাল: নিক্সন চৌধুরী
ভাঙ্গা হাসপাতালের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনকালে প্রধান অতিথিকে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। ছবি: ইত্তেফাক

ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের অন্যতম সহযোগী সংগঠন আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ছয় তলা ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেছেন। শুক্রবার সকালে তিনি হাসপাতাল চত্বরে এ ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন।

এসময় হাসপাতাল চত্বরে অনুষ্ঠিত এক জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে নিক্সন চৌধুরী বলেন, দক্ষিণাঞ্চলের প্রবেশদ্বার খ্যাত ও প্রায় পাঁচ লাখ জনবসতির একমাত্র চিকিৎসা সেবা কেন্দ্র ভাঙ্গা ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল। দীর্ঘদিন এখানে জরাজীর্ণ ভবনে রোগীদের সেবা দেওয়া হতো। বাংলাদেশের উন্নয়নের রোল মডেল বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রীর সুদৃষ্টির কারণে অতি অল্প সময়ে আমরা নতুন ভবনের কার্যাদেশ পেয়েছি। ৫০ শয্যার হাসপাতালটিকে অচিরেই ১০০ শয্যায় রূপান্তরের জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করা হবে।

তিনি আরও বলেন, ২০১৪ সালে আমি যখন প্রথম নির্বাচিত হই সেই সময়ে ভাঙ্গা হাসপাতালটি দালালদের দৌরাত্ম ও আহত রোগীদের সার্টিফিকেট বাণিজ্য জমজমাট ছিল। প্রশাসনকে সঙ্গে নিয়ে এই সাত বছরে আমি ভাঙ্গা হাসপাতালকে দালাল মুক্ত ও সার্টিফিকেট বাণিজ্যকে চিরতরে বন্ধ করে দিয়েছি।

চিকিৎসকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আপনাদের নিরাপত্তায় প্রশাসনসহ আমি সব সময় পাশে আছি।

নতুন ৬ তলা ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন ও জনসভার সভাপতি উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মহসিন ফকির বলেন, ভাঙ্গা হাসপাতালে ১০০ শয্যা রূপান্তর করা সময়ের দাবি। তিনি সংসদ সদস্য মজিবুর রহমানকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বলেন, এমন একজন নেতার অধীনে কাজ করতে পেরে আমি ভাগ্যবান অনুভব করছি। তার দিক নির্দেশনায় ভাঙ্গা হাসপাতালের ডাক্তার সংকট দূরীকরণসহ রোগীদের সেবার মান শতভাগ নিশ্চিত করা গেছে। এখানকার রোগীদের আর জেলা সদরে যেতে হয় না। তারা সব ধরনের চিকিৎসা সেবা ভাঙ্গা হাসপাতাল থেকেই পেয়ে থাকেন।

আরও পড়ুন: রাণীনগরে প্রধানমন্ত্রীর পাকা ঘর পাইয়ে দিতে কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী স্বাস্থ্য অধিদপ্তর প্রকৌশলী মনিরুজ্জামান মোল্লা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজী রবিউল ইসলাম, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এসএম হাবিবুর রহমান, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সফিকুর রহমান, সাবেক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহাদাৎ হোসেন, উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল মালেক, উপজেলা আবাসিক প্রকৌশলী ফরিদুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফাইজুর রহমান, জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান শাহিনুর শাহিন, ভাঙ্গা বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ প্রমুখ।

ইত্তেফাক/এসি

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত