যৌতুকের জন্য নির্যাতন করে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

যৌতুকের জন্য নির্যাতন করে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ
প্রতীকী ছবি।

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে তাসলিমা আক্তার (২৮) নামে এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে তার শাশুড়ি নুরুন্নাহার বেগমকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ৬ বছর পূর্বে বড়হিত ইউনিয়নের অলিম উদ্দিনের ছেলে সোহেল মিয়া (৩২) এর সাথে মগটুলা ইউনিয়নের নারায়ণপুর গ্রামের আব্দুস সালামের মেয়ে তাসলিমার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে যৌতুকের জন্য স্ত্রীর উপর চাপ সৃষ্টি করে আসছিল।

১ ডিসেম্বর বাবার বাড়ি থেকে দুই লক্ষ টাকা এনে দেয়ার জন্য তাসলিমার উপর চাপ সৃষ্টি করলে সে বাপের বাড়ি যায়। তার মা বাবা ওই টাকা দেয়া সম্ভব নয় বলে জানান। পরদিন সে স্বামী বাড়ি ফিরে আসে।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১টার দিকে স্বামীর বাড়ি থেকে ফোনে তাসলিমার বাবার বাড়িতে খবর দেয়া হয় তাসলিমা গুরুতর অসুস্থ। তাসলিমার বাবার বাড়ির লোকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখে তালিমার মরদেহ কাপড় দিয়ে ঢেকে রাখা হয়েছে। তারা লাশ দেখলে চাইলে স্বামীর বাড়ির লোকজন শুধু মুখমণ্ডল ছাড়া বাকি দেহ দেখাতে টালবাহানার আশ্রয় নেয়। এতে তাসলিমার মা বাবা ভাইয়ের সন্দেহ হলে তারা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় আনার সময় তার গলায় এবং বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন দেখতে পায়। পুলিশ ও পরিবারের ধারণা তাকে যৌতুকের জন্য শারীরিক নির্যাতন করে হত্যা করা হয়েছে।

এ ব্যাপারে ঈশ্বরগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) শেখ জহিরুল ইসলাম মুন্না জানান, এ ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে এবং মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ইত্তেফাক/বিএএফ

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত