চৌগাছায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন থামছে না

চৌগাছায় অবৈধভাবে বালু উত্তোলন থামছে না
বেড়গোবিন্দপুর বাঁওড়ে এস্কেভেটর দিয়ে ট্রাকে বালু ভরা হচ্ছে। ছবি: ইত্তেফাক

চৌগাছায় থামছে না অবৈধভাবে বালু উত্তোলন। প্রশাসনের নির্দেশ অমান্য করে বেড়গোবিন্দপুর বাঁওড়ে বালু উত্তোলন অব্যাহত রয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে মামলা ও জরিমানা করলেও বন্ধ হয়নি বালু উত্তোলন। এর ফলে হুমকিতে রয়েছে বাঁওড় এলাকার আবাদি জমি। স্থানীয়রা দ্রুত সময়ের মধ্যে বালু উত্তোলন পুরোপুরি বন্ধের দাবি জানিয়েছে।

জানা যায়, চৌগাছা বেড়গোবিন্দপুর বাঁওড়সহ উপজেলার পাতিবিলা, নিয়ামতপুর, মাধবপুর, দেবীপুর, দুলালপুর, আজমতপুরসহ বিভিন্ন এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করেছে একটি মহল। এ ব্যাপারে উপজেলার ধুলিয়ানী ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার দাউদ হোসেন সম্প্রতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রকৌশলী এনামুল হকের কাছে লিখিত অভিযোগ জানালে গত ২৯ ডিসেম্বর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) বেড়গোবিন্দপুর বাঁওড়ে অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় বালু উত্তোলন কাজে ব্যবহূত কয়েকটি ড্রেজার মেশিন জব্দ ও জরিমানা আদায় করেন তিনি। এছাড়া তিনি উত্তোলন করা কয়েক লাখ ঘনফুট বালু জব্দ করে নোটিশ জারি করে লাল ফ্লাগ টানিয়ে দেন। গতকাল মঙ্গলবার বেড়গোবিন্দপুর বাঁওড়ের আজমতপুর এলাকায় সরেজমিনে দেখা যায়, প্রশাসনের আদেশ অমান্য করে বালু উত্তোলন চলছে। কয়েকটি ট্রাকে করে জব্দ করা বালু নিয়ে যাওয়া হচ্ছে।

বেড়গোবিন্দপুর গ্রামের আব্দুল মান্নানসহ কয়েক জন কৃষক বলেন, ‘এভাবে বালু উত্তোলন চলতে থাকলে আগামী বর্ষায় বাঁওড় এলাকার কয়েকশ একর আবাদি জমি বিলীন হয়ে যাবে।’ এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) নারায়ণ চন্দ্র পাল বলেন, ‘আমরা উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অভিযান চালিয়ে নগদ অর্থ জরিমানা, মালামাল জব্দসহ বিভিন্ন ব্যবস্থা নিয়েছি। জব্দ করা বালু পরিবহন করার বিষয়টি শুনেছি। সরেজমিনে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রকৌশলী এনামুল হক বলেন, ‌‘বালু উত্তোলনকারীদের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে। বালু উত্তোলন বন্ধে বিভিন্ন কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।’

ইত্তেফাক/কেকে

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত