মুক্তিযোদ্ধাকে লাঠিপেটার অভিযোগ, ওসি প্রত্যাহার

মুক্তিযোদ্ধাকে লাঠিপেটার অভিযোগ, ওসি প্রত্যাহার
সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মাদ আলী জিন্নাহ। ছবি: সংগৃহীত

ফরিদপুরের সালথায় ওসির বিরুদ্ধে এক মুক্তিযোদ্ধাকে গালিগালাজ ও লাঠিপেটার অভিযোগ করেন মুক্তিযোদ্ধারা। তারা ওই ওসিকে প্রত্যাহারের দাবি জানান।

বুধবার সকালে সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মাদ আলী জিন্নাহকে প্রত্যাহার করে ফরিদপুর পুলিশ লাইনসে সংযুক্ত করা হয়। তবে পুলিশ বলছে, ওসির বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে তদন্ত করে তার প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

ফরিদপুর পুলিশ সুপার মো. আলীমুজ্জামান বলেন, এক মুক্তিযোদ্ধা লাঠিপেটার ঘটনায় ওসির বিরুদ্ধে যে অভিযোগ আনা হয়েছে তার তদন্ত করে প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তারপরেও স্থানীয় সামাজিক পরিবেশ ও পরিস্থিতির বিষয়টি বিবেচনা করে প্রত্যাহার করা হয়েছে ওই পুলিশ কর্মকর্তাকে।

শনিবার (৯ জানুয়ারি) দুপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোশারফ হোসেনকে গালিগালাজ ও লাঠিপেটার অভিযোগ এনে ওসি মোহাম্মদ আলী জিন্নাহকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে প্রত্যাহারের দাবি জানান মুক্তিযোদ্ধারা। সালথা উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের সামনে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে এ দাবি জানানো হয়। একই দাবিতে গত মঙ্গলবার মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে পার্শ্ববর্তী নগরকান্দা উপজেলার মুক্তিযোদ্ধারা।

গত ৯ জানুয়ারি জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে বিষয়টি তদন্তের জন্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) জামাল পাশার নেতৃত্বে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটিকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হলেও পরবর্তীতে কমিটির অনুরোধে আরও তিন দিন সময় বাড়ানো হয়।

গত মঙ্গলবার রাতে তদন্ত কমিটি পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামানের কাছে প্রতিবেদন জমা দেয়। ওই প্রতিবেদনে ওসির বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগের সত্যতা প্রমাণিত হয়নি।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত