ঠাকুরগাঁওয়ে বিলুপ্তপ্রায় নীলগাই উদ্ধার

ঠাকুরগাঁওয়ে বিলুপ্তপ্রায় নীলগাই উদ্ধার
প্রতীকী ছবি

ঠাকুরগাঁও জেলার বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার সীমান্তবর্তী নাগর নদী তীর এলাকায় বিরল প্রজাতির একটি নীলগাই (গরু) আটক করেছে এলাকার লোকজন।

মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার পাড়িয়া শালডাঙ্গা এলাকায় পথচারীরা বিরল প্রজাতির নীলগাই (গরু) দেখতে পায়। তারা সেটিকে ধরার চেষ্টা করলে অর্ধ শতাধিক এলাকাবাসী নীলগাইটিকে আটক করতে সক্ষম হয়। তারা দ্রুত নাক ও গলায় দড়ি দিয়ে বেঁধে রাখে।

খবর পেলে বালয়িাডাঙ্গী উপজেলার পারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমান ও স্থানীয় কান্তিভিটা বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা সেখানে উপস্থিত হয়। নীলগাই আটককারীরা নীলগাইটিকে হস্তান্তর করতে অস্বীকৃতি জানালে বিজিবি সদস্যরা নীলগাইটি নিজেদের হেফাজতে নেয়।

পারিয়া এলাকার প্রত্যক্ষদর্শী তুষার চৌধুরী বলেন, দ্রুতগতিতে আসা নীলগাইটি কয়েকজন মিলে সেটিকে উদ্ধার করে পা বেঁধে নিরাপদে রাখে। পরে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও বিজিবির কাছে হস্তাস্তর করা হয়।

পারিয়া শালডাঙ্গা এলাকার সাদেক আলী বলেন, প্রায় কয়েকদিন ধরে সীমান্তবর্তী নাগর নদীর আশে পাশেই জঙ্গলে নীলগাইটি ছিল। জঙ্গলের পাশে ফসল নষ্ট করলে আজ কয়েকজন মিলে নীলগায়টিকে ধাওয়া দিলে পালিয়ে যায়।পরে আটক করতে সক্ষম হয়।

ঠাকুরগাঁও বন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা হরিপদ দেবনাথ বলেন, বিলুপ্ত প্রজাতি নীলগাইটি বালিয়াডাঙ্গী উপজেলায় পারিয়া শালডাঙ্গা এলাকায় উদ্ধারের কথা শুনেছি। বর্তমানে স্থানীয় বিজিবি কাছে রয়েছে সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। নীলগাইটির যেন কোন প্রকার সমস্যা না হয় সে দিকে বিশেষ লক্ষ্য রাখা হচ্ছে। দ্রুত দিনাজপুর উদ্যানে নীলগাইটিকে নিয়ে যাওয়া হবে বলে তিনি জানান।

বালিয়াডাঙ্গী উপজেলার চেয়ারম্যান আলী আসলাম জুয়েল বলেন, নীলগাইটি এলাকাবাসী আটক করার সময় কিছুটা অসুস্থ হয়ে পড়ে। স্থানীয়ভাবে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। নীলগাইটি সুস্থ হলে কথায় পাঠালে ভালো হয় বন বিভাগের সঙ্গে আলোচনা করে সীদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

ইত্তেফাক/কেকে

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x