অপহৃত কিশোর ৩ মাস পর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে উদ্ধার, আটক ১

অপহৃত কিশোর ৩ মাস পর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে উদ্ধার, আটক ১
প্রতীকী ছবি

মহেশখালী থেকে ৩ মাস আগে অপহৃত কিশোর মোজাহিদকে মহেশখালী থানা পুলিশ একাধিকবার অভিযান চালিয়ে অবশেষে উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় মুক্তিপণ নিতে এসে এক নারী পাচারকারীকে আটক করেছে পুলিশ।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. জাহিদুল ইসলাম, সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ৩ মাস আগে অপহৃত কিশোর মো. মোজাহিদকে ছেড়ে দিতে অপহরণকারীরা ৪ লক্ষ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে সম্প্রতি ছেলের বাবাকে অপহরণকারীরা ফোন করে। ফোনের সূত্র ধরে মুক্তিপণের টাকা নিতে টেকনাফের রোজিনা আক্তার নামে এক নারী অপহরণকারী গত ১৭ ফেব্রুয়ারি মহেশখালী আসলে পুলিশ তাকে স্থানীয়দের সহায়তায় আটক করে। সে টেকনাফ শামলাপুর এলাকার জহির আলমের কন্যা।

পরে ওই মহিলাকে নিয়ে পুলিশ একাধিকবার কক্সবাজার ও চট্টগ্রামের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে ব্যর্থ হলেও অবশেষে অপহরণকারীদের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে ২ মার্চ বিকাল থেকে রাত ৮ টা পর্যন্ত তার নির্দেশে মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুল হাই এর নেতৃত্বে অপহৃত মো. মোজাহিদ (১৬)কে রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে উদ্ধার করা হয়। মোজাহিদ মহেশখালী পৌরসভার গোরকঘাটা সিকদার পাড়ার আবদুল গফুরের ছেলে।

মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুল হাই বলেন, অপহরণের ঘটনায় অপহৃত মোজাহিদের পিতা আব্দুল গফুর বাদি হয়ে মহেশখালী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ (সংশোধিত ২০০৩) এর ৭/৮/৩০ ধারায় মামলা দায়ের করে। উক্ত মামলায় রোজিনা আক্তারকে (২৭) আসামি করে অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। মামলাটি তদন্ত করছে এস আই মো. মফিজুল ইসলাম।

ইত্তেফাক/এমএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x