কুমিল্লা সিটি করপোরেশন এলাকা

গণশৌচাগার কম ভোগান্তিতে মানুষ

গণশৌচাগার কম ভোগান্তিতে মানুষ
কুমিল্লা সিটি করপোরেশন। ছবি: সংগৃহীত

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন এলাকায় নগরবাসীর ব্যবহার উপযোগী সাতটি অত্যাধুনিক গণশৌচাগার রয়েছে। যা চাহিদার তুলনায় একেবারে অপ্রতুল। ফলে ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে কুমিল্লার ১৭টি উপজেলা থেকে আগত হাজার হাজার মানুষকে। সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে নারী, শিশু ও প্রতিবন্ধীদের।

বিশেষ করে কুমিল্লা শহরের প্রাণকেন্দ্র কান্দিরপাড় টাউনহল মাঠ এলাকা ও ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পদুয়ার বাজার বিশ্বরোড এলাকায় গণশৌচাগার না থাকায় দুর্ভোগের শিকার হতে হচ্ছে তাদের। সূত্র জানায়, ২০১১ সালে কুমিল্লা পৌরসভার ১৮টি ও কুমিল্লা সদর দক্ষিণ পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ড মোট ২৭টি ওয়ার্ড নিয়ে কুমিল্লা সিটি করপোরেশন ঘোষণা করে বর্তমান সরকার। সিটি করপোরেশন এলাকায় সাতটি গণশৌচাগার রয়েছে। বর্তমানে আরো চারটি অত্যাধুনিক গণশৌচাগার স্থাপনের উদ্যোগ গ্রহণ করলেও তাদের নিজস্ব কোনো জায়গা না থাকায় তা বাস্তবায়ন করতে ব্যর্থ হচ্ছে।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের সহকারী প্রকৌশলী মোহাম্মদ বশির উল্লা মজুমদার জানান, সিটি করপোরেশন এলাকার নগর উদ্যান, রাজগঞ্জ বাজার, চক বাজার, সুজানগর, প্রধান ডাকঘর সংলগ্ন স্থানে একটি করে ও জাঙ্গালিয়া কুমিল্লা কেন্দ্রীয় বাসটার্মিনালে দুটি অত্যাধুনিক গণশৌচাগার চালু রয়েছে। কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী শেখ মো. নুরুল্লাহ্ ইত্তেফাককে জানান, ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট প্রপোজাল (ডিপিপি) ও মিউনিসিপ্যাল গভর্ন্যান্স অ্যান্ড সার্ভিসেস প্রজেক্ট (এমজিএসপি) তেও অত্যাধুনিক পাবলিক টয়লেট স্থাপনের জন্য অর্থ বরাদ্দ থাকলেও সিটি করপোরেশনের নিজস্ব কোনো জায়গা না থাকায় তারা পাবলিক টয়লেট স্থাপন করতে পারেনি। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে আরো বলেন, নগরীর ২৭ নম্বর ওয়ার্ডের চৌয়ারা বাজারে কুমিল্লা-চট্টগ্রাম পুরাতন মহাসড়কের পাশে একটি অত্যাধুনিক পাবলিক টয়লেট স্থাপন করতে গিয়ে স্থানীয়দের বাধার মুখে শেষ পর্যন্ত সেটি ব্যর্থ হয়েছি।

ইত্তেফাক/এসিএস

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x