র‍্যাবের সঙ্গে গোলাগুলিতে কিশোর গুলিবিদ্ধ

র‍্যাবের সঙ্গে গোলাগুলিতে কিশোর গুলিবিদ্ধ
ছবি: সংগৃহীত।

কক্সবাজার সদর উপজেলার লিংকরোডে র‍্যাবের সাথে গোলাগুলিতে মেহেদী হাসান বাবু নামের একজন গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন। তার বুকে এবং পায়ে দুটি গুলি লেগেছে বলে দাবি চিকিৎসা সংশ্লিষ্টদের। এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধসহ দুজনকে আটক করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৮ এপ্রিল) বিকেল ৩ টার দিকে এ গোলাগুলির ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছেন র‍্যাব-১৫ এর সহকারি পরিচালক (মিডিয়া) সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আবু সালাম চৌধুরী।

আটককৃতরা হলেন, কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা দক্ষিণ মুহুরিপাড়ার আব্দুল্লাহর ছেলে মেহেদী হাসান বাবু। অপরজন রামু খাইম্যারঘোনা এলাকার আব্দুল করিমের ছেলে তরিকুল ইসলাম (১৯)। গুলিবিদ্ধ বাবুর পরিবারের দাবি বাবুর বয়স ১৪ বছর এবং সে ইলিয়াস মিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণির শিক্ষার্থী। আর র‍্যাব-১৫'র দাবি তার বয়স ১৭ বছর।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আবু সালাম চৌধুরী জানান, ঝিলংজার লিংকরোড মেরিনসিটি কমপ্লেক্সের সামনে মাদক কারবারিরা ইয়াবা লেনদেন করতে জড়ো হয়েছে। এ খবরে র‌্যাব অভিযানে গেলে মাদক ব্যবসায়ীদের সাথে র‍্যাবের গুলাগুলির ঘটনা ঘটে। এসময় মেহেদী হাসান বাবু নামে একজন গুলিবিদ্ধ হয় এবং তরিকুল ইসলাম নামে একজন ৪ হাজার পিস ইয়াবা ও অস্ত্রসহ র‍্যাবের হাতে আটক হয়।

এদিকে র‍্যাবের দাবী, গুলিবিদ্ধ মেহেদী ও তরিকুল উভয়েই ইয়াবা ব্যবসার সাথে জড়িত। তাদের সাথে র‍্যাবের বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এমনকি ঘটনাস্থল থেকে ৪ হাজার ইয়াবা ২ রাউন্ড তাজা কার্তুজ এবং একটি দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।

অন্যদিকে গুলিবিদ্ধ মেহেদীর পরিবার বলছে, আহত মেহেদী ইলিয়াস মিয়া চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী। পাশাপাশি সে রং মিস্ত্রী হিসেবে দিন মজুরের কাজ করতো।

সর্বশেষ পাওয়া তথ্যমতে, র‍্যাবই গুলিবিদ্ধ মেহেদীকে অতি দ্রুত কাল বিলম্ব না করে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেছে।

এদিকে, গুলিবিদ্ধ মেহেদীর প্রাথমিক চিকিৎসা চলাকালীন সময়ে কক্সবাজার সদর হাসপাতাল চত্বরে তার স্বজনরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে এবং উপস্থিত সাংবাদিকদের জানান মেহেদী ইয়াবা ব্যবসায়ী নয় এবং সে একজন নিয়মিত স্কুলছাত্র।

ইত্তেফাক/এসআই

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x