ছিনতাইকারীদের কবলে ইত্তেফাকের সাংবাদিক

ছিনতাইকারীদের কবলে ইত্তেফাকের সাংবাদিক
ছবি: সংগৃহীত

সাভারে ছিনতাইকারীদের কবলে পরে ইত্তেফাকের মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি শহিদুল ইসলাম সুজন । রবিবার রাত ১০ টার দিকে নবীনগর স্মৃতিসৌধ সামনে ছিনতাইকারীদের কবলে পড়েন তিনি। এ ঘটনায় শহিদুল ইসলাম সুজন বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগসূত্রে জানা গেছে,শহিদুল ইসলাম পেশাগত কারণে মানিকগঞ্জ থেকে ঢাকার সাভারে যান। ফেরার পথে তিনি সাভার থেকে মোটরসাইকেল যোগে নবীনগর পর্যন্ত আসেন। নবীনগর থেকে মানিকগঞ্জ আসার জন্য ভাড়াকৃত একটি প্রাইভেটকারে উঠেন। গাড়ীটিতে যাত্রীবেশে আরও তিনজন ছিল। গাড়িটি ছাড়ার ৫মিনিট পরই গাড়িতে থাকা যাত্রীবেশে ছিনতাইকারীরা তার চোখ, হাত-পা বেঁধে ফেলে এবং মারধর শুরু করে।

এসময় কাছে থাকা তিনটি মোবাইল, ৩ হাজার টাকা, হাতের আংটি এবং ঘড়ি ছিনিয়ে নেয় ছিনতাইকারীরা। একপর্যায়ে ছিনতাইকারীরা তাকে ছেঁড়ে দেওয়ার জন্য তার কাছে পাঁচ লাখ টাকা দাবি করে। বেধড়ক মারধরের একপর্যায়ে এক লাখ টাকা দিতে রাজি হন শহিদুল ইসলাম। পরে তার ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বার থেকে তার পরিবারকে টাকার জন্য ফোন দেওয়া হয়। কথোপকথনের একপর্যায়ে ছিনতাইকারীরা শহিদুল ইসলাম সুজন ইত্তেফাক পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয়টি নিশ্চিত হয়।

এসময় তার ওপর অমানবিক অত্যাচার আরও বেড়ে যায়। এর কিছুক্ষণ ছিনতাইকারীদের প্রাইভেটকারটি কালামপুর বিসিক এলাকার সামনে আসলে তাকে হাত বাঁধা অবস্থায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায় ছিনতাই চক্র। পরবর্তীতে স্থানীয় লোকজন এবং পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য মানিকগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুজ্জামান বলেন, ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

ইত্তেফাক/এমএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x