ওসি প্রদীপকে চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার কারাগারে স্থানান্তর

ওসি প্রদীপকে চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজার কারাগারে স্থানান্তর
টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাস। ছবি: সংগৃহীত

সেনাবাহিনীর সাবেক মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলায় গ্রেফতার টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাসকে চট্টগ্রাম কারাগার থেকে কক্সবাজার কারাগারে স্থানান্তর করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যে তাকে প্রিজন ভ্যানে করে কক্সবাজার নিয়ে যাওয়া হয়। গত বছরের নভেম্বর থেকে প্রায় সাত মাস তাকে চট্টগ্রাম কারাগারে রাখা হয়েছিল।

২০২০ সালের ৩১ জুলাই কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে গাড়ি তল্লাশিকে কেন্দ্র করে পুলিশের গুলিতে নিহত হন মেজর সিনহা। এ ঘটনায় ৫ আগস্ট সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস বাদী হয়ে বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সাবেক ইনচার্জ (পরিদর্শক) লিয়াকত আলীকে এক নম্বর এবং ওসি প্রদীপ কুমার দাশকে দুই নম্বর আসামি করে মোট ৯ পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে কক্সবাজার হাকিম আদালতে মামলা করেন।

আদালত র‌্যাবকে এই মামলা তদন্ত করার আদেশ দেন। ৬ আগস্ট প্রধান আসামি লিয়াকত আলী ও প্রদীপ কুমার দাশসহ ৭ পুলিশ সদস্য আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। এরপর প্রদীপকে সরকারি চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। ২০২০ সালের ১৩ ডিসেম্বর প্রদীপসহ ১৫ জনকে অভিযুক্ত করে কক্সবাজার আদালতে অভিযোগপত্র দিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. খায়রুল ইসলাম।

ওসি প্রদীপের ২২ মাসে ১৪৪ ক্রসফায়ার

এছাড়া, ওসি প্রদীপ ও তার স্ত্রী চুমকির বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ এনে ২০২০ সালের ২৩ আগস্ট মামলা করেন দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়, চট্টগ্রাম-২ এর সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিন। তাদের বিরুদ্ধে তিন কোটি ৯৫ লাখ পাঁচ হাজার ৬৩৫ টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন, সম্পদের তথ্য গোপন ও মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ আনা হয়। ১৪ সেপ্টেম্বর প্রদীপকে দুদকের মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়। দুদকের মামলায় হাজির হতে গত নভেম্বরে প্রদীপকে কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে স্থানান্তর করা হয়।

ইত্তেফাক/ইউবি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x