স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে কলেজছাত্রীর অনশন

স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে কলেজছাত্রীর অনশন
গুগল ম্যাপে সাঁথিয়া।

পাবনার সাঁথিয়ায় স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবিতে দুই দিন ধরে শ্বশুর বাড়িতে অনশন করছেন কলেজ পড়ুয়া এক ছাত্রী। গতকাল বৃহস্পতিবার (২২ জুলাই) পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার আতাইকুলা থানার সড়াডাঙ্গী গ্রামে আশরাফ আলী লালুর ছেলে রোমিও রাহান কনকের বাড়িতে অনশন শুরু করেন ওই ছাত্রী । ঘটনাটি এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে।

সাঁথিয়া উপজেলার আর-আতাইকুলা ইউনিয়নের বিলকুলা গ্রামের মেয়ে পাবনা মহিলা কলেজের অনার্স তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী কল্পনা (ছদ্ম নাম) জানান, সড়াডাঙ্গী গ্রামে আশরাফ আলী লালুর ছেলে রোমিও রাহান কনকের সঙ্গে মোবাইলে পরিচয়ের পর তাদের মদ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। শুধু প্রেমই নয় তাদের এ সম্পর্ক বিয়েতে গড়ায়। তারা ২০১৯ সালের জুলাই মাসে ৫ লাখ টাকা দেনমহরে গোপনে বিয়ে করেন। বিয়ের পর দুই বছর কনক আমাকে নিয়ে আত্মীয়ের বাড়ীসহ ঢাকায় নিয়ে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে থাকেন। কনককে পারিবারিক ভাবে বাড়িতে নিতে বললে টালবাহানা করে কালক্ষেপণ করতে থাকেন। উপায়ান্তর না পেয়ে গত ২২ জুলাই সকাল ১১টার দিকে পারিবারিক ভাবে স্ত্রীর স্বীকৃতির দাবীতে কনকের বাড়িতে উঠি। এ সময় কনক বাড়ি থেকে পালিয়ে যায়।

কলেজ ছাত্রী আরও জানান, তাকে গলা টিপে ঘর থেকে বের করে দেয় ননদসহ অন্যরা। স্বামীর বাড়ি থেকে অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত এ বাড়িতেই অবস্থান করবেন। কলেজ ছাত্রী স্বামী কনকের বাড়ির উঠানে বসে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

এ বিষয়ে কনকের মা ও কনকের চাচা আ. রশিদ সাংবাদিকদের বলেন, মেয়েটির বিয়ের অভিযোগ মিথ্যা। তার অভিযোগ নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদসহ অনেক স্থানে দরবারের চেষ্টা করা হয়েছে।

মেয়েটির সঙ্গে বিয়ের কথা অস্বীকার করে অভিযুক্ত কনক মোবাইল ফোনে জানান, কাবিনের ভুয়া দলিল দেখিয়ে তাকে হয়রানী করা হচ্ছে। কলেজ ছাত্রীর সকল অভিযোগ মিথ্যা।

ইত্তেফাক/এমআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x