কুমিল্লায় দুইদিন আটকে রেখে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ, ইমাম গ্রেফতার

কুমিল্লায় দুইদিন আটকে রেখে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ, ইমাম গ্রেফতার
কুমিল্লার চান্দিনায় এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে দুইদিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার আবুল বাশার।

কুমিল্লার চান্দিনায় এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে দুইদিন আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগে আবুল বাশার (৫০) নামে এক মসজিদের ইমামকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

সোমবার (২ আগস্ট) ভোর রাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার নূরজাহান হোটেলের সামনে থেকে ওই ইমামকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। আবুল বাশার চান্দিনা উপজেলার শব্দলপুর গ্রামের মৃত মোতালেব মুন্সীর ছেলে এবং একই উপজেলার তীরচর নয়াবাড়ি মসজিদের ইমাম।

র‌্যাব জানায়, গত ২২ জুলাই থেকে ২৪ জুলাই পর্যন্ত ইমাম আবুল বাশার ১৪ বছর বয়সী এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে আটকে রেখে ধর্ষণ করে। এতে ধর্ষিতা অসুস্থ হয়ে পড়লে সে পালিয়ে যায়। এ নিয়ে ওই মাদ্রাসা ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে চান্দিনা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এর পর থেকে ধর্ষক আবুল বাশার পলাতক ছিল। বিষয়টি র‌্যাবের নজরে আসলে ধর্ষণকারীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চালানো হয় এবং সোমবার ভোরে নূরজাহান হোটেলের সামনে বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে আবুল বাশারকে গ্রেফতার করা হয়।

র‌্যাব-১১ সিপিসি-২ কুমিল্লা ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোসেন বলেন, ‘প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মসজিদে ইমাম আবুল বাশার জানিয়েছে, সে ওই মেয়েকে আরবি পড়ানোর সুবাদে ওই বাড়িতে যাতায়াত করতো। সুযোগ বুঝে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করার বিষয়টি সে স্বীকার করেছে।

ইত্তেফাক/এমএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x