সিলেটে ছাত্রলীগের কমিটি বাতিলের দাবিতে লাগাতার কর্মসূচির ঘোষণা

সিলেটে ছাত্রলীগের কমিটি বাতিলের দাবিতে লাগাতার কর্মসূচির ঘোষণা
ছবি: প্রতীকী

সিলেটে জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি বাতিল না হওয়া পর্যন্ত বৃহস্পতিবার থেকে লাগাতার অবস্থান ধর্মঘট পালন হবে বলে জানিয়েছেন সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি শাহরিয়ার আলম সামাদ। বুধবার (১৩ অক্টোবর) বিকালে সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

শাহরিয়ার আলম সামাদ বলেন, আসলে যারা ত্যাগী এবং যারা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হওয়ার দৌড়ে ছিলেন এবং সর্বজন গ্রহণযোগ্য ছিলেন তাদের কাছে কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পক্ষ থেকে টাকার অফার দেয়া হয়েছিল। তাদের টাকা দেয়ার মতো অবস্থা নেই বলে এসব প্রার্থীরা তা প্রত্যাখ্যান করেছেন। আমাদের ধারণা এর চাইতে বেশি টাকা দিয়ে কমিটি গঠন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, যাদেরকে কমিটিতে পদ দেয়া হয়েছে তারা কোনভাবেই পদের যোগ্য নয়। তবুও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় এবং সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য ১ কোটি ২০ লাখ টাকার বিনিময়ে অছাত্র, সাম্প্রতিক সময়ে দেশে-বিদেশে আলোচিত সিলেট এমসি কলেজের হোস্টেলে ধর্ষণ মাফলার আসামিদের মদদাতা, বিভিন্ন চেক অবমূল্যায়ন (ডিজঅনার) মামালার আসামি এবং ফ্রিডম পার্টির নেতার নাতিকে নিয়ে সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এই কমিটি নিয়ে আমরা সিলেটের ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা চরম হতাশ এবং বিব্রত।

সামাদ বলেন, সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রাহেল সিরাজ যখন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য নির্বাচিত হয়েছিল তখন তাকে আপনারাই ফুল দিয়ে বরণ করছিলেন তাহলে এখন কেন বলছেন- সে অশিক্ষিত এবং ছিনতাইকারী।

একই প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ কাউকে কোন যোগ্যতার বলে দায়িত্ব দিবে তা তাদের বিষয়। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ তাকে সদস্য হিসেবে নির্বাচিত করেছে। আমরা তাদের অধীনস্থ ইউনিট হিসেবে বরণ করেছি। তখন যদি তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আসতো তাহলে আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা বিষয়টি নিরসন করতেন।

দলের সিদ্ধান্ত ভুল হলে সেটা ফোরামে জানাতে পারতেন। কিন্তু সবার সামনে তুললেন অর্থ লেনদেনের অভিযোগ। এতে দলের ক্ষতি হচ্ছে কি না? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এসব কারণে দলের অবশ্যই ক্ষতি হচ্ছে। সেজন্য আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ চাচ্ছি। যাতে ভবিষ্যতে এরকম না হয়। কারণ কারো স্বার্থে সংগঠনকে ব্যবহার করা কোনভাবেই কাম্য নয়।

তিনি আরও বলেন, আজকের এই সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে চরম অনিয়মের মাধ্যমে সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের ঘোষিত কমিটি বাতিল করে প্রকৃত ত্যাগী ও গ্রহণযোগ্য ছাত্রলীগ কর্মীদের নিয়ে সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি নতুন করে গঠনে আমরা আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনার সরাসরি হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

এর আগে মঙ্গলবার সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করা হয়। সিলেট জেলা কমিটির নতুন সভাপতি হিসেবে নাজমুল হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে রাহেল সিরাজের নাম প্রকাশ করা হয় । নয়া এই কমিটিকে প্রত্যাখ্যান করে ছাত্রলীগের একাংশ নগরীতে মঙ্গলবার বিক্ষোভ মিছিল বের করে এবং সম্পাদক হিসেবে রাহেল সিরাজের বাসায় হামালা ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে।

ইত্তেফাক/ইআ/এএইচপি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x