ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬
২৯ °সে


ইলিয়াস আলীর সন্ধান চেয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি

ইলিয়াস আলীর সন্ধান চেয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি
এম ইলিয়াস আলীর সন্ধান চেয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্মারকলিপি প্রদান

বিএনপির সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য এম ইলিয়াস আলীর সন্ধান চেয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্মারকলিপি প্রদান করেছে সিলেট জেলা বিএনপি। বৃহস্পতিবার সিলেট জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে স্মারকলিপি গ্রহণ করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) সন্দ্বীপ কুমার সিংহ।

এম ইলিয়াস আলী গুম হওয়ার ৭ বছর অতিবাহিত হওয়ায় তার সন্ধান চেয়ে তিনদিনের কর্মসূচি ঘোষণা করে সিলেট জেলা বিএনপি। ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে বুধবার দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। বৃহস্পতিবার জেলা প্রশাসক বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়। ২৯ এপ্রিল সোমবার আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। স্মারকলিপিতে এম ইলিয়াস আলী, ছাত্রদল নেতা ইফতেখার আহমদ দিনার, জুনেদ আহমদ ও ইলিয়াস আলীর গাড়ি চালক আনসার আলীসহ গুম করা সকল নেতাকর্মীকে ফিরিয়ে দেয়ার জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবি জানানো হয়।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, ২০১২ সালের ১৭ এপ্রিল বিএনপির তৎকালীন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক, সিলেট জেলা শাখার সাবেক সভাপতি, সাবেক সংসদ সদস্য জননেতা এম ইলিয়াস আলী ও তার গাড়ী চালক আনসার আলীকে রাজধানী ঢাকার বনানী এলাকা থেকে গুম করা হয়। একই কায়দায় ২০১২ সালের ৩ এপ্রিল সিলেট জেলা ছাত্রদলের তৎকালীন সহসাধারণ সম্পাদক ইফতেখার আহমদ দিনার ও ছাত্রদল নেতা জুনেদ আহমদকে ঢাকার বনানী এলাকা থেকে গুম করা হয়। ৭ বছর পেরিয়ে গেলেও সরকারের পক্ষ থেকে গুমকৃত নেতাকর্মীদের ফিরিয়ে দেয়ার কার্যকর কোন উদ্যোগ চোখে পড়েনি। দেশের যে কোন নাগরিকের নিরাপত্তা বিধান করার দায়িত্ব সরকারের। দেশের যে কোন নাগরিক গুম হলে তাকে খুঁজে বের করার দায়িত্ব সরকারের উপরই বর্তায়। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে এম ইলিয়াস আলী, ছাত্রদল নেতা ইফতেখার আহমদ দিনার, জুনেদ আহমদ ও গাড়ী চালক আনসার আলীসহ গুমকৃত সকল নেতাকর্মীদের অক্ষত অবস্থায় তাদের পরিবারের কাছে ফিরিয়ে দেওয়ার জোর দাবি জানান। একই সাথে ষড়যন্ত্রমূলক মামলার রায়ে কারান্তরীণ সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নি:শর্ত মুক্তির দাবি জানান তারা।

স্মারকলিপি প্রদানকালে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুল কাহির চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, সহসভাপতি কামরুল হুদা জায়গীরদার, একেএম তারেক কালাম, জেলা উপদেষ্টা এটিএম ফয়েজ, কামাল মিয়া, জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুর রব চৌধুরী ফয়সল, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আতিকুর রহমান সাবু, ইশতিয়াক আহমদ সিদ্দিকী, মঈনুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আহাদ খান জামাল ও আবুল কাশেম, জেলা মুক্তিযোদ্ধা দলের সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক আনোয়ার হোসেন, জেলা বিএনপির দপ্তর সম্পাদক মো. ফখরুল হক, প্রচার সম্পাদক নিজাম উদ্দিন জায়গীরদার, প্রকাশনা সম্পাদক আল আসলাম মুমিন প্রমুখ।

ইত্তেফাক/আরকেজি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন