ঢাকা মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬
৩৫ °সে


‘পিতা হত্যার বিচার চাই’

‘পিতা হত্যার বিচার চাই’
মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান সেলিমের ছেলে তানভীর রহমান তন্ময়। ছবি : ইত্তেফাক

ঈশ্বরদীর নিহত মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান সেলিমের ছেলে তানভীর রহমান তন্ময় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুতি জানিয়ে বলেছেন, ‘আপনার পিতা, জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ডাকে সারা দিয়ে আমার পিতা মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে দেশ স্বাধীন করেছিলেন। স্বাধীন দেশে স্বাধীনতার পরাজিত শক্তিরা ১৯৭৫ সালে যখন আপনার পিতাকে নির্মমভাবে হত্যা করেছিল, তখন আমার পিতা এই হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন। দীর্ঘদিন পর হলেও আপনি আপনার পিতা হত্যাকাণ্ডের বিচার করেছেন। মুক্তিযুদ্ধের সরকার আজ রাষ্ট্র ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় আমার মুক্তিযোদ্ধা পিতা আততায়ীর গুলিতে খুন হলেন। হত্যাকাণ্ডের ২ মাসেরও অধিক সময় অতিবাহিত হলেও প্রকৃত খুনি এখনও গ্রেফতার হয়নি। তাই আমার আকুতি স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর বঙ্গবন্ধু কন্যা আপনি রাষ্ট্র ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় আমার মুক্তিযোদ্ধা পিতা হত্যাকাণ্ডের বিচার কেন হবে না ?’

বুধবার পুরাতন বাসষ্ট্যান্ডে নিহত মুক্তিযোদ্ধা মোস্তাফিজুর রহমান সেলিম হত্যায় জড়িত প্রকৃত আসামি গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ঈশ্বরদী উপজেলা কমান্ড আয়োজিত গণঅনশন কর্মসূচি চলাকালে সেলিমের ছেলে এই আকুতি জানিয়েছেন।

সকাল ১০টা হতে দুপৃুর ১টা পর্যন্ত প্রতীকী অনশনে অর্ধশতাধিক মুক্তিযোদ্ধা অংশগ্রহণ করেন। সাবেক কমান্ডার গোলাম মোস্তফা চান্না মণ্ডলের সভাপতিত্বে এবং মুক্তিযোদ্ধা ফজলুর রহমান ফান্টুর সঞ্চালনায় এ সময় সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুজ্জামান বিশ্বাস, পৌর মেয়র আবুল কালাম আজাদ মিন্টু, উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নায়েব আলী বিশ্বাস, পৌর আওযামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইসাহক আলী মালিথা, ভাইস চেযারম্যান আতিযা ফেরদৌস কাকলী, প্রেস ক্লাবের সভাপতি স্বপন কুমার কুন্ডু, মুক্তিযোদ্ধা আ ত ম শহীদুজ্জামান নাসিম, মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গির আলম, মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম রফি, মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক বুদু, রেলওয়ে শ্রমিক লীগ নেতা জহুরুল হক মালিথা, পাকশীর আওয়ামী লীগ নেতা রেজাউল করিম রাজা, যুবলীগ নেতা আনোয়ার হোসেন, রূপপুরবাসী রেজাউল করিম মহিদুল প্রমুখ।

আরও পড়ুন: নন্দীগ্রামে মাদ্রাসার ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগ

এ সময় বক্তরা ৭ দিনের আলটিমেটাম দিয়ে বলেন, এই সময়ের মধ্যে প্রকৃত আসামি গ্রেফতার করে বিচারের কাঠগড়ায় দাঁড় করানো না হলে দুর্বার গণআন্দোলন গড়ে তুলে ঈশ্বরদী অচল করে দেওয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত ৬ ফেব্রুয়ারি রাত আনুমানিক ৯টার দিকে মুক্তিযোদ্ধা ও পাকশীর আওয়ামী লীগ নেতা সেলিম মোটরসাইকেল যোগে নিজ বাড়িতে প্রবেশের সময় আততায়ীদের গুলিতে আহত হয়ে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মারা যান।

ইত্তেফাক/কেকে

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২১ মে, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন