ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬
৩৩ °সে


ঢাকা ব্যাংকের আইসিটি প্রকৌশলীকে ডিবি পরিচয়ে অপহরণের অভিযোগ

ঢাকা ব্যাংকের আইসিটি প্রকৌশলীকে ডিবি পরিচয়ে অপহরণের অভিযোগ
ইঞ্জিনিয়ার আরিফ মঈনুদ্দিন

রাজধানী ঢাকায় ডিবি পুলিশ পরিচয়ে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার বাসিন্দা ইঞ্জিনিয়ার আরিফ মঈনুদ্দিন (৩৮) অপহরণের শিকার হয়েছেন। এ ঘটনায় ধানমন্ডি থানায় জিডি করা হয়েছে। কিন্তু চার মাস সময় অতিবাহিত হলেও পুলিশ অপহৃতকে উদ্ধার করতে পারেনি। এ ঘটনার পর থেকে তার পরিবারে চলছে আহাজারী। আরিফ ঢাকা ব্যাংকের আইসিটি বিভাগে কর্মরত ছিলেন।

তার গ্রামের বাড়ি চকরিয়া পৌরসভার ৬নম্বর ওয়ার্ডের কাহারিয়াঘোনা মাস্টারপাড়ায়। তার বাবা একজন মুক্তিযোদ্ধা। আরিফ ঢাকার হাজারীবাগ থানাস্থ ঝিগাতলায় ভাড়া বাসায় থাকতেন।

সোমবার দুপুরে চকরিয়া প্রেসক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে আরিফের পিতা মুক্তিযোদ্ধা নুর মোহাম্মদ বিএসসি কান্নাজড়িত কণ্ঠে অভিযোগ করে বলেন, আমার ছেলে আরিফ মঈনুদ্দিনকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে গত ১৭ ফেব্রুয়ারি বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে শিশুপুত্র আহনাফকে নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে ঢাকাস্থ ধানমন্ডি পপুলার হাসপাতালের সামনে পৌছালে তার ব্যবহৃত কারগাড়ি থামিয়ে দরজা খুলতে বলে।

দরজা খোলার পরপর ডিবি পুলিশ পরিচয় দেয়া ৪-৫জন লোকের মধ্যে দুইজন চালককে নামিয়ে দিয়ে কার গাড়িতে উঠে পড়ে। পরে চালককে তাদের বহনকারী অন্য একটি গাড়িতে উঠিয়ে নিয়ে গাড়ি দুটি মোহাম্মদপর বেড়িবাঁধ এলাকায় নিয়ে যায়। বেড়িবাঁধ এলাকায় পৌছার পর আরিফের শিশুপুত্র আহনাফ ও কারগাড়ির চালককে ছেড়ে দিলেও আরিফকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

মুক্তিযোদ্ধা নুর মোহাম্মদ বিএসসি বলেন, অপহরণের এ ঘটনায় আমার ছোট ছেলে মেহেদি হাসান বাদী হয়ে ওইদিন সন্ধ্যায় ধানমন্ডি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (নং ৮৩৮/২০১৯) দায়ের করেন। পরবর্তীতে পুলিশ অপহরণের কোন ক্লু উদঘাটন করতে না পারায় অবশেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন আদালতে একটি অপহরণ মামলা (২৩০/২০১৯) দায়ের করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি অভিযোগ করে বলেন, আমার ছেলে আরিফকে অপহরণের দুইমাস পূর্বে তার স্ত্রী লাইলা পারভীন ও শিশু মেয়ে আরিবা নওমীকে বাড়ি থেকে জোরপূর্বক অপহরণ করে অজানাস্থানে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় আরিফ বাদী হয়ে তার ভায়রা বিএনপি নেতা মেজর (অবঃ) মিজানুর রহমান ও স্ত্রীর বড়ভাই ডাঃ তারেকের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেন। এ মামলার জের ধরে আমার ছেলেকে অপহরণ করে জিম্মি করা হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা নুর মোহাম্মদ বিএসসি বলেন, আমি একজন মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে আপনাদের (সাংবাদিক) মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে আকূল আবেদন জানাচ্ছি অপহরণের শিকার আমার ছেলে, পুত্রবধূ ও নাতনিকে উদ্ধারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে। পাশাপাশি এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

ইত্তেফাক/আরকেজি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৭ অক্টোবর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন