ঢাকা বুধবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৬ ফাল্গুন ১৪২৬
৩০ °সে

কষ্টে আছে মালাকার পারিবারগুলো

কষ্টে আছে মালাকার পারিবারগুলো
পসার সাজিয়ে ক্রেতার অপেক্ষায় মালকারেরা। ছবি: ইত্তেফাক

অর্থ সংকট আর উপকরণ তৈরি কাঁচামালের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় মালাকর পরিবার গুলোর দুর্দিন চলছে। জীবন-জীবিকার তাগিদে পৈত্রিক পেশা ছেড়ে দিয়ে অন্য পেশায় ঝুঁকছেন।

হিন্দু সম্প্রদায়ের বিয়েসহ বিভিন্ন পূজা-অর্চনার অনুষঙ্গ শোলার তৈরি উপকরণ তৈরি কাজ করে থাকেন মালাকর সম্প্রদায়ের লোকজন। এক সময় তাদের কদর ছিল। তারা বিয়ের মুকুট, প্রতিমার অলঙ্কার, মনসা ঠাকুরসহ বিভিন্ন পূজার সরঞ্জামাদি ও ধর্মীয় উপকরণ তৈরি করে নিজেকে গর্বিত মনে করতেন। সংসারও চলতো ভালো ভাবে।

বৃহস্পতিবার উলিপুর হাটে গিয়ে দেখা যায়, বিভিন্ন উপকরণের পসরা সাজিয়ে বসে শোলা দিয়ে তৈরি করছেন হিন্দু সম্প্রদায়ের বিয়েসহ পূজা অর্চনার জিনিষপত্র। এ সময় নারায়ণ চন্দ্র মালাকরের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন,‘পারিবারিক পেশা, ছাড়তেও পারিনা, অন্য কামও পাই না। এগল্যা বিক্রি করি আর সংসার চলে না।’

আরও পড়ুন: গণধর্ষণের ঘটনায় পাবনা থানার ওসি প্রত্যাহার, এসআই বরখাস্ত

পাশেই বসা সুবন চন্দ্র মালাকর, নিত্যজিৎ চন্দ্র মালাকর, ইন্দ্রজিৎ মালাকর বলেন, এক সময় পরিত্যক্ত নিচু জমিতে শোলা চাষ হতো। কিন্তু বর্তমানে প্রতি পোণ ৮০টি শোলা পাঁচশ থেকে ছয়শ টাকায় কিনতে হচ্ছে। যা দিয়ে এসব উপকরণ তৈরি করে মজুরি খরচও উঠছে না।

উলিপুর ও চিলমারী উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় বেশ কিছু মালাকর পরিবার থাকলেও এখন হাতেগোনা কয়েকটি পরিবার এই কাজের সঙ্গে জড়িত। আর্থিক সংকটের পাশাপাশি উপকরণের অভাবে অনেকেই এ পেশা ছেড়ে দিচ্ছেন।

ইত্তেফাক/অনি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন