ঢাকা মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬
২৮ °সে


রাউজানে বালুর মহলে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান

রাউজানে বালুর মহলে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান
রাউজানে বালুর মহলে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান। ছবি: ইত্তেফাক

রাউজানে বিভিন্ন বালুর মহলে অভিযান পরিচালনা করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। অভিযানে সংশ্লিষ্ট কাউকে আটক করতে না পারলেও বালুর মহলে ব্যবহৃত পাইপ বিক্রিয় কেন্দ্র, টঙ-ঘরগুলো কেটে, ভেঙ্গে ধ্বংস করা হয়। শনিবার দুপুর ২টা হতে সন্ধ্যা ৬টায় পর্যন্ত উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জোনায়েদ কবির সোহাগের নেতৃত্বাধীন পরিচালিত ভ্রাম্যমান আদালত উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের সর্তা খালের গর্জনীয়া, আজিজুর রহমানের বাড়ি, হলদিয়া সাজেদা কবির প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকা, খচ্চরঘাট এবং ডাবুয়া খালের বৃন্দাবনের বালুর মহলগুলোতে অভিযান পরিচালনা করেন। এই টিমে আরও ছিলেন উপজেলা সার্ভেয়ার মোহাম্মদ ফারুকসহ থানা পুলিশের একটি দল।

ভ্রাম্যমান অভিযানের সংবাদ ছড়িয়ে পড়ায় বালু খেকোরা স্যালো মেশিন লুকিয়ে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা জানান, ফসলী জমির উপর স্থাপিত এই বালুর মহলগুলো পরিচালনা করেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের পুত্র মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন, ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সবুজ বড়ুয়া, ৫ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোহাম্মদ আলী, জাহেদুল আলম হিরু, সাহাব উদ্দিন, বাপ্পী, সাব্বিরসহ আরও অনেকেই। অভিযানে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান পুত্র সাজ্জাদ এবং ইউপি সদস্য মোহাম্মদ আলী, সবুজ বড়ুয়ার দুইটি টঙ্গ-ঘর সদৃশ বিক্রয় কেন্দ্র ভেঙে ধ্বংস করা হয়। সেই সঙ্গে বালুর মহলের অদূরে পাহাড়ে লুকিয়ে রাখা প্লাস্টিকের পাইপগুলো খুঁজে বের করে ধ্বংস করা হয়।

অভিযান পরিচালনাকালে স্থানীয় লোকদের উল্লাস প্রকাশ করতে দেখা যায়। স্থানীয় শতাধিক নারী পুরুষরা ইউএনও'র গাড়ি থামিয়ে তাদের বালু উত্তোলনের কারণে খালের ভাঙ্গনে তাদের বাড়িঘর বিলীন হওয়ার দৃশ্য দেখিয়ে বালু খেকোদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ তুলে ধরেন।

এই ব্যাপারে রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জোনায়েদ কবির সোহাগ দৈনিক ইত্তেফাককে বলেন, 'রাউজানে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা বালুর মহলগুলোর বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছি। আজ হলদিয়ার বেশ কয়েকটি বালুর মহলে অভিযান পরিচালনা করেছি। অভিযানে কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি। তবে দুইটি টঙ্গ ঘরসহ বালু উত্তোলনে বেশ কিছু সরঞ্জাম ধ্বংস করা হয়েছে। রাউজানের প্রতিটি এলাকায় অবৈধভাবে গড়ে ওঠা বালুর মহল গুলোর বিরুদ্ধে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।'

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৯ নভেম্বর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন