নতুন প্রমাণসহ সিনেটে যাবে ট্রাম্পের অভিশংসন অভিযোগ

প্রকাশ : ১৫ জানুয়ারি ২০২০, ১৬:৫৬ | অনলাইন সংস্করণ

  অনলাইন ডেস্ক

ছবি-সংগৃহীত

ক্ষমতার অপব্যবহার ও কংগ্রেসের কাজে বাঁধা দেওয়ার অভিযোগে ডেমোক্রেটিক পার্টি নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদে ইতোমধ্যে অভিশংসিত হয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পরবর্তী পদক্ষেপ হিসেবে নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ থেকে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ সিনেটে পাঠাতে হবে। এর পূর্বে আজ বুধবার অভিশংসনের আনুষ্ঠানিক অভিযোগ উচ্চকক্ষ সিনেটে পাঠানো সংক্রান্ত ভোট গ্রহণ সংক্রান্ত নিয়মরক্ষার ভোট হবে। এর আগে মঙ্গলবার ডেমোক্রেট শিবির জানিয়েছে, সিনেটে অভিশংসন অভিযোগ পাঠানোর সময় ট্রাম্পের বিরুদ্ধে নতুন কিছু প্রমাণ সংযুক্ত করে দেওয়া হবে। 

নতুন প্রমাণ সম্পর্কে সিনিয়র ডেমোক্রেটরা জানিয়েছেন, ফ্লোরিডার ব্যবসায়ী লেভ পার্নাস তাদেরকে একটি টেপ রেকর্ডার ও কিছু নথি সরবরাহ করেছেন। যা প্রমাণ করে জো বাইডেনের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরুর জন্য জেলেনস্কিকে চাপ দিয়েছিলেন ট্রাম্প।  

পার্নাস ট্রাম্পের ব্যক্তিগত আইনজীবী রুডি জিলিয়ানির সহযোগী ছিলেন। তখন জিলিয়ানি বাইডেনের বিরুদ্ধে তদন্তে সহায়তা করতে পার্নাসকে অনুরোধ করেছিলেন। 

ট্রাম্পের অভিশংসন অভিযোগের সঙ্গে পার্নাস কর্তৃক সরবরাহকৃত নতুন প্রমাণ সংযুক্তি এটাই প্রমাণ করে যে, ডেমোক্রেটরা সিনেটে শুনানি শুরুর আগে অভিশংসন অভিযোগকে আরও পাকাপোক্ত করতে চাচ্ছে। 

এদিকে আজ বুধবার প্রতিনিধি পরিষদে ট্রাম্পের অভিশংসন বিষয়ে আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব সিনেটে প্রেরণ সংক্রান্ত ভোট হবার কথা রয়েছে। বুধবারের ভোটের পর বৃহস্পতিবার থেকেই সিনেটে বিচার প্রক্রিয়া শুরুর কথা রয়েছে। তবে শুরুর কয়েকদিন বিচারক ও সাক্ষীদের শপথ গ্রহণ, আনুষ্ঠানিকভাবে অভিশংসন অভিযোগ পাঠ হবে। এমনকি আগামী সপ্তাহের শুরুর কয়েক দিনে শুনানি শুরুর তেমন সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছে সিএনএন।

আরও পড়ুন: মিয়ানমারের রোহিঙ্গা গণহত্যার রায় ২৩ জানুয়ারি

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের জুলাই মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির জেলেনস্কির একটি ফোনালাপ ফাঁসের পর থেকে বিতর্ক শুরু হয়। অভিযোগ উঠে আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে নিজের সম্ভাব্য প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরুর জন্য জেলেনস্কিকে চাপ দেন ট্রাম্প। তাছাড়া তার বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হলে সেটাতেও বাঁধা প্রদান করেন ট্রাম্প। এই দুই অভিযোগ প্রমাণিত হবার পর মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে অভিশংসিত হন ট্রাম্প। খবর-রয়টার্স, সিএনএন।

ইত্তেফাক/এসইউ