ঢাকা রোববার, ০৫ এপ্রিল ২০২০, ২২ চৈত্র ১৪২৬
২৭ °সে

চীনের হোটেলে আটকে পড়াদের খাবার পৌঁছে দিচ্ছে রোবট

চীনের হোটেলে আটকে পড়াদের খাবার পৌঁছে দিচ্ছে রোবট
হোটেলে আটকেপড়াদের খাবার পৌঁছে দিচ্ছে রোবট লিটল পিনাট [ছবি: সংগৃহীত]

করোনা ভাইরাস আতঙ্কে হোটেলবন্দি মানুষ। হোটেল থেকে বাইরে বের হতেও পারছেন না তারা। এ অবস্থায় তাদের দরজায় দরজায় খাবার পৌঁছে দিচ্ছে রোবট। সংক্রমণ এড়াতে এভাবেই প্রযুক্তির সাহায্য নিচ্ছে চীন। হোটেলের প্রতি রুমে ঘুরে ঘুরে রোবটের খাবার পৌঁছে দেওয়ার ঐ ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে।

এই রোবটটির নাম লিটল পিনাট। ভিডিওটি চীনের হনঝাউয়ের একটি হোটেলের। তাতে দেখা যাচ্ছে, রোবটটি স্তরে স্তরে সাজানো খাবার নিয়ে ঐ হোটেলের প্রতিটা রুমের সামনে পৌঁছে যাচ্ছে। তারপর জোরে ঘোষণা করছে, ‘হ্যালো। মিষ্টি লিটল পিনাট আপনার খাবার নিয়ে পৌঁছে গেছে, তা সংগ্রহ করে নিন। সংগ্রহ করা হয়ে গেলে ফিনিশ বোতাম টিপে দিন। খাবার সংগ্রহের পর ফিনিশ বোতামে চাপ দেওয়া মাত্রই আবার রোবট বলে উঠছে, খাবার উপভোগ করুন, আর কিছু প্রয়োজন হলে ইউচ্যাটে হোটেলের স্টাফকে জানান। হোটেলের একটা রুমে খাবার পৌঁছে দেওয়ার সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পর রোবট রওনা দিচ্ছে অন্য রুমের দিকে।

আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে, ছড়িয়ে পড়া এ ভিডিওটি অবশ্য জানুয়ারির। ২৭ এবং ২৮ জানুয়ারি এই দুদিন হনঝাউয়ে পৌঁছানো একটি বিমানের ৩৩৫ যাত্রীকে ঐ হোটেলেই নজরবন্দি করে রাখা হয়েছিল। কারণ ৩৩৫ যাত্রী নিয়ে সিঙ্গাপুর থেকে হনঝাউয়ে পৌঁছানো ঐ বিমানের দুই জন যাত্রীর করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়েছিল। এরপর বিমানের সব যাত্রীকে দুই দিনের জন্য আলাদা করে পর্যবেক্ষণের জন্য রাখা হয়েছিল ঐ হোটেলে।

আরো পড়ুন: ট্রাম্পের পথে থাকছে চার কোটি রূপির ফুল

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে অনেক আগে থেকেই এরকম প্রযুক্তির সাহায্য নিচ্ছে চীন। বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসার সরঞ্জাম পৌঁছে দিচ্ছে রোবট। গুয়াংঝৌয়ের একটি বাজার এলাকায় আবার এরকম যন্ত্রমানবও নিয়োগ করা হয়েছে। কেউ মাস্ক পরে না—হাঁটলেই, বকা দিচ্ছে রোবট। এছাড়াও কিছু চীনা প্রযুক্তি সংস্থা এক বিশেষ মোবাইল অ্যাপ তৈরি করেছেন। এতে ব্যবহারকারীরা জানতে পারবেন, তারা যে বিমানে উঠেছেন বা ট্রেনে চড়ছেন, তাতে কোনো ভাইরাস আক্রান্ত রোগী সফর করেছেন কি-না।

ইত্তেফাক/এমআর

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
০৫ এপ্রিল, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন