বেটা ভার্সন
আজকের পত্রিকাই-পেপার ঢাকা সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০, ২৯ আষাঢ় ১৪২৭
২৭ °সে

মার্কিন সেনা হত্যায় তালেবানদের সহযোগিতার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান রাশিয়ার

মার্কিন সেনা হত্যায় তালেবানদের সহযোগিতার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান রাশিয়ার
সংগৃহীত ছবি।

আফগানিস্তানে মোতায়েন যুক্তরাষ্ট্রের সেনাদের হত্যা করতে তালেবানের সঙ্গে রাশিয়া হাত মিলিয়েছে বলে মার্কিন দৈনিক নিউ ইয়র্ক টাইমস যে দাবি করেছে তা প্রত্যাখ্যান করেছে মস্কো।

রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে সেদেশের বার্তা সংস্থা তাস জানিয়েছে, নিউ ইয়র্ক টাইমসে যে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে তা পুরোটাই গুজব এবং মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগের নির্দেশে এটি তৈরি করা হয়েছে বলে মনে করার যথেষ্ট কারণ রয়েছে।

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা আরো বলেছেন, এ ধরনের গুজব ছড়ানোর ঘটনায় মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগের বুদ্ধিবৃত্তিক দুর্বলতা ফুটে উঠেছে; কারণ, তারা রাশিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ উত্থাপনের ক্ষেত্রে এর চেয়ে ভালো কোনো যুক্তি খুঁজে পায়নি।

দৈনিক নিউ ইয়র্ক টাইমস শুক্রবার এক খবরে দাবি করেছিল, রাশিয়ার একটি অজ্ঞাত গোয়েন্দা ইউনিট আফগানিস্তানে মোতায়েন মার্কিন সেনাদের হত্যা করার কাজে তালেবানকে সবরকম সহযোগিতা করছে।

আফগানিস্তানে সন্ত্রাস বিরোধী যুদ্ধ ও দেশটির নিরাপত্তা নিশ্চিত করার অজুহাতে আমেরিকা ও তার মিত্ররা ২০০১ সালে দেশটি দখল করে।কিন্তু মার্কিন সেনা উপস্থিতির ফলে আফগানিস্তানে উল্টো নিরাপত্তাহীনতা বেড়ে গেছে এবং সন্ত্রাসবাদ ও মাদক উৎপাদন অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। আফগান জনগণ অবিলম্বে তাদের দেশ থেকে মার্কিন নেতৃত্বাধীন দখলদার সেনাদের প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়ে আসছে।

রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে সেদেশের বার্তা সংস্থা তাস জানিয়েছে, নিউ ইয়র্ক টাইমসে যে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে তা পুরোটাই গুজব এবং মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগের নির্দেশে এটি তৈরি করা হয়েছে বলে মনে করার যথেষ্ট কারণ রয়েছে।

রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা আরো বলেছেন, এ ধরনের গুজব ছড়ানোর ঘটনায় মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগের বুদ্ধিবৃত্তিক দুর্বলতা ফুটে উঠেছে; কারণ, তারা রাশিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ উত্থাপনের ক্ষেত্রে এর চেয়ে ভালো কোনো যুক্তি খুঁজে পায়নি।

দৈনিক নিউ ইয়র্ক টাইমস শুক্রবার এক খবরে দাবি করেছিল, রাশিয়ার একটি অজ্ঞাত গোয়েন্দা ইউনিট আফগানিস্তানে মোতায়েন মার্কিন সেনাদের হত্যা করার কাজে তালেবানকে সবরকম সহযোগিতা করছে।

আফগানিস্তানে সন্ত্রাস বিরোধী যুদ্ধ ও দেশটির নিরাপত্তা নিশ্চিত করার অজুহাতে আমেরিকা ও তার মিত্ররা ২০০১ সালে দেশটি দখল করে।কিন্তু মার্কিন সেনা উপস্থিতির ফলে আফগানিস্তানে উল্টো নিরাপত্তাহীনতা বেড়ে গেছে এবং সন্ত্রাসবাদ ও মাদক উৎপাদন অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে গেছে। আফগান জনগণ অবিলম্বে তাদের দেশ থেকে মার্কিন নেতৃত্বাধীন দখলদার সেনাদের প্রত্যাহারের আহ্বান জানিয়ে আসছে।

ইত্তেফাক/এআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত