সাজা হলেও নাজিবকে এখনই জেলে যেতে হচ্ছে না

সাজা হলেও নাজিবকে এখনই জেলে যেতে হচ্ছে না
মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক। ছবি: ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল

দুর্নীতির দায়ে ১২ বছর জেল এবং ৪ কোটি ৯০ লাখ ডলার জরিমানা হয়েছে মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের। মঙ্গলবার কুয়ালালামপুর হাইকোর্টের বিচারপতি মোহাম্মদ নাজলান ঘাজালি এই রায় দিয়েছেন। তবে এখনই শাস্তি কার্যকর হচ্ছে না। কারণ বিচারপতি জানিয়ে দিয়েছেন, একটা আবেদনের শুনানি এখনো বাকি আছে। তা না হওয়া পর্যন্ত এই শাস্তি কার্যকর হবে না। তাই ওয়ানএমডিবি কেলেঙ্কারিতে দোষী সাব্যস্ত হলেও নাজিব আপাতত জেলের বাইরে থাকবেন। খবর ডয়চেভেলের

নাজিব জানিয়েছেন, ‘আমি এই রায় নিয়ে একেবারেই সন্তুষ্ট নই। কিন্তু আমাদের দেশের ব্যবস্থায় হাইকোর্ট প্রথম রায় দেয়। এটা একজন বিচারপতির রায়। এই রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করা যাবে এবং আমি তা করব।’ বিচারপতি অবশ্য তার রায়ে বলেছেন, অভিযোগকারীরা সাফল্যের সঙ্গে প্রমাণ করতে পেরেছেন, নাজিব এই কেলেঙ্কারির সঙ্গে যুক্ত ছিলেন এবং তিনি দোষী। বিচারপতি জানিয়েছেন, ক্ষমতার অপব্যবহারের জন্য নাজিবের ১২ বছর জেল এবং ৪ কোটি ৯০ লাখ ডলার জরিমানা দিতে হবে। তাছাড়া বিশ্বাসভঙ্গ ও বেআইনিভাবে অর্থপাচারের জন্য ১০ বছর করে জেল হবে। তবে সব কটি শাস্তি একসঙ্গেই চলবে। তাই নাজিবকে ১২ বছরই জেলে থাকতে হবে।

দিন সাতেক আগেই হাইকোর্ট নাজিবকে ৪০ কোটি ডলার বকেয়া কর দিতে বলেছে। ২০১১ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত আয়কর পেনাল্টিসহ দিতে হবে তাকে। মঙ্গলবার নাজিবের ভক্তরা হাইকোর্টের বাইরে জড়ো হয়েছিলেন। তারা স্লোগান দিতে থাকেন, ‘লং লিভ মাই বস’। রায় আসার পর তারা বলতে থাকেন, এটা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলা।

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত