লকডাউন এড়াতে ধনীদের কাণ্ড!

লকডাউন এড়াতে ধনীদের কাণ্ড!
[ছবি: সংগৃহীত]

লকডাউনের কারণে বিশ্বের অনেক দেশই বিদেশি নাগরিকদের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। কিন্তু এই বিধিনিষেধকেই বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখাতে নাগরিকত্ব কিনতে অভিনব কৌশল অবলম্বন করছেন উন্নত বিশ্বের অতি ধনীরা। লকডাউনের মধ্যেও যাতে নিজেদের পছন্দের দেশে ছুটি কাটাতে পারেন সেজন্য তারা বিনিয়োগ অভিবাসন কোটায় নাগরিকত্বের আবেদন করছেন। বড় ধরনের বিনিয়োগকারীদের সাধারণত অনেক দেশ নাগরিকত্ব দিয়ে থাকে; এই ভিসাকে ‘গোল্ডেন ভিসা’ বলা হয়। সেই সুযোগটাই কাজে লাগাচ্ছেন এই অতি ধনীরা।

বিনিয়োগের মাধ্যমে নাগরিকত্ব পাওয়া ব্যক্তিরাও সেই দেশের পাসপোর্ট পেয়ে থাকেন। এই ধরনের নাগরিকত্ব পাওয়া ধনীদের জন্য তখন আর কাঙ্ক্ষিত দেশে ভ্রমণে কোনো জটিলতা থাকে না। লকডাউনের কারণে যে বিধিনিষেধের বেড়াজালে আটকে গেছে বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ সেই বেড়াজালকেই অতি ধনীরা কেটে বের হচ্ছেন নিজেদের অর্থ প্রতিপত্তি দিয়ে। এটাকে অনেকে ভবিষ্যতের জন্য প্ল্যান বি হিসেবেও বিবেচনা করছেন। করোনা ভাইরাসের মহামারির মধ্যে অতি ধনীদের এই ধরনের পদক্ষেপের কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সাধারণ মানুষ পাঁচ থেকে ১০ বছরের পরিকল্পনা করে কিছু করে থাকেন। কিন্তু অতি ধনীরা অনেক সময় ১০০ বছরের বেশি সময়ের পরিকল্পনা করেন। এই ধরনের বিনিয়োগ কোটায় নাগরিকত্বের পেছনে লকডাউন পরিস্থিতিতে স্বাচ্ছন্দ্যময় করার পাশাপাশি তাদের সুদূরপ্রসারী কোনো পরিকল্পনাও থাকতে পারে।—সিএনএন

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত