হায়াত হত্যা একটি পৃথক রাষ্ট্রীয় কাজ

হায়াত হত্যা একটি পৃথক রাষ্ট্রীয় কাজ
বেলুচ যুবক হায়াত মির্জা হত্যার প্রতিবাদ। ছবি: দ্যা জেনেভা ডেইলি

পাকিস্তান যখন ১৪ আগস্ট তাদের স্বাধীনতার ৭৩তম বছর উদযাপন করার প্রস্তুতি নিচ্ছিল, তখন বেলুচিস্তান শোক প্রকাশ করছিল। প্রত্যেক দিন কেন বর্বরতা ও অমানবিক কার্যকলাপ বাড়ছে তা জানার চেষ্টা করছিল।

এছাড়া ১৩ আগস্ট একটি মর্মান্তিক ঘটনার সাক্ষী হয়েছিল বেলুচিস্তানবাসী। সে দিন বেলুচ যুবক হায়াত মির্জা প্রাণ হারান।

এই হত্যা কেবল হায়াত মির্জারই হত্যাকাণ্ড নয়, এই হত্যাকাণ্ড অনেক স্বপ্নকে হত্যা করেছিল। শিক্ষার স্বপ্ন, সম্মানজনক চাকরির স্বপ্ন, বাবা-মাকে দেখাশুনার স্বপ্ন।

৮টি বুলেট হায়াতের জীবনে বিভীষিকা এনে দিয়েছিল। বুলেটগুলো তার বুকে গিয়ে বিধে ছিল। আর এই গুলি করেছিল ফ্রন্টিয়ার ক্রপস-এফসির কর্মীরা। প্যারামিলিটারি এই বাহিনী বেলুচিস্তান ও কেপিকে জনগোষ্ঠীকে নিয়ন্ত্রণ করার কাজে ব্যবহার হচ্ছিল। অথচ তাদের দায়িত্ব ছিল সীমান্তে নিরাপত্তা দেওয়া।

হায়াত হত্যার মামলার প্রত্যক্ষদর্শী ছিল। স্থানীয় মিডিয়াগুলো মামলার প্রতিবেদন করেছিল। আর এ জন্যই পাকিস্তান বাহিনী বেলুচিস্তানে তাদের অপরাধকে মেনে নিয়েছিল।

এ ঘটনায় এফসির সদস্য শহিদি উল্লাহকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ। হায়াত মির্জার বাবা তাকে শনাক্তও করেছিল।

হায়াত মির্জার পরিবার দরিদ্র। এই যুবক নিজের শিক্ষা নিশ্চিত করতে চেষ্টা করে যাচ্ছিল। কিন্তু এফসি সদস্যের সেই বুলেট হায়াতের পরিবারের স্বপ্ন এবং আশা ভেঙে তছনছ করে দেয়।

এই অমানবিক হত্যার সত্যতা প্রমাণের জন্য আইজিএফসি হায়াত মির্জার বাড়িতে যায়। ঘটনা চেপে যেতে তারা তার বাবাকে সাত লাখ টাকার প্রস্তাব দেয়। কিন্তু যে বৃদ্ধ বাবা তার চোখের সামনে প্রকাশ্য দিবালোকে ছেলেকে হারাতে দেখেছেন তিনি কিভাবে এই টাকা নিতে পারেন? তিনি সেই টাকা নিতে অস্বীকার করেন।

হায়াতের বাসা থেকে আইজিএফসি ফেরার পর একটি বিবৃতি দেয় এফসি। সেখানে বলা হয়, হায়াতের ঘটনাটি দুঃখজনক হলেও এটি একটি ব্যক্তির কাজ ছিল। এতে পুরো সংস্থা জড়িত ছিল না।

পাকিস্তানের বাইরে থাকা বেলুচ ন্যাশনাল মুভমেন্টের সংগঠক ডা. নাসিম বেলুচ বলেন, হত্যা মামলাটি বন্ধ করার জন্য যথাসাধ্য চেষ্টা চালাচ্ছে পাকিস্তানের রাষ্ট্রীয় বাহিনী।

পাকিস্তানের নিপীড়ন নীতি ও নৃশংসতার অবসান ঘটাতে বেলুচদের সম্ভাব্য উপায়ে প্রতিরোধ করা দরকার।নিজের মাতৃভূমি বেলুচিস্তানে নিরাপদে বাস করতে হলে বেলুচদের প্রতিরোধ করতে হবে। সূত্র: দ্যা জেনেভা ডেইলি

ইত্তেফাক/জেডএইচ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত