'মাদক সন্ত্রাসের' মাধ্যমে ভারতের সঙ্গে অসম যুদ্ধে লিপ্ত পাকিস্তান

'মাদক সন্ত্রাসের' মাধ্যমে ভারতের সঙ্গে অসম যুদ্ধে লিপ্ত পাকিস্তান
প্রতীকী ছবি।

মাদক সন্ত্রাসের মাধ্যমে পাকিস্তান ভারতের সঙ্গে অসম যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছে । জার্মানির দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক বিশেষজ্ঞ সিগফ্রাইড ও ওল্ফের সম্প্রতি প্রকাশিত একটি লেখায় এমনটি দাবি করেছেন।

সিগফ্রাইড ও ওল্ফ তার লেখায় বলেন, পাকিস্তানের রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসবাদ এবং আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসে তাদের পৃষ্ঠপোষকতার কথা সবাই জানে। তবে সাম্প্রতিক সময়ে মাদক চোরাচালানের সঙ্গে ইসলামাবাদের জড়িত থাকার অভিযোগ বেড়েই চলছে। মাদক চোরাচালান নিয়ে পাকিস্তানের বড়ো পরিকল্পনা রয়েছে।

ওল্ফ বলেন, মাদক সন্ত্রাসবাদ শব্দটির সঙ্গে মাদক পাচার এবং সন্ত্রাসবাদ শব্দটি পরস্পর সম্পর্কযুক্ত। ওল্ফের মতে মাদক চোরাচালন পাকিস্তানের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় সীমান্ত সন্ত্রাসবাদের একটি অবিচ্ছেদ্য অংশ। এটির মাধ্যমে পাকিস্তান সন্ত্রাসীদের জন্য ফান্ড গঠন করছে এবং প্রতিবেশী দেশ ভারতের সঙ্গে অসম যুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছে এবং কিছু বিদেশী নীতি লক্ষ্য অর্জন করছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ড্রাগ এনফোর্সমেন্ট এজেন্সি( ডিইএ) মাদক চোরাচালানের মাধ্যমে পাকিস্তানের সন্ত্রাসী সংগঠনগুলোর অর্থ উপার্জনের দিকে নজরদারি বাড়াচ্ছে। জার্মানির এই বিশেষজ্ঞ আরও বলেন, নয়াদিল্লির প্রতি ইসলামাবাদের নীতিমালার মধ্যে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় সন্ত্রাসবাদ গভীরভাবে জড়িত রয়েছে। এর মধ্যে মাদক-সন্ত্রাসবাদ সবচেয়ে ভয়াবহ রূপগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি। পাকিস্তানের সেনাবাহিনী, গোয়েন্দা, জঙ্গি সংগঠনসহ মাদক পাচারের ক্ষেত্রে সবাই এক সঙ্গে কাজ করে। সেখানে কোনো পার্থক্য নেই।

আন্তর্জাতিক বিশ্বের পাকিস্তানের মাদক বাণিজ্য এবং তা দিয়ে সন্ত্রাসীদের পৃষ্ঠপোষকতার খবর ইতোমধ্যে নিশ্চিত করেছে বিশ্বের বিভিন্ন সংস্থা। এটা পরিষ্কার যে মাদক সন্ত্রাসবাদের মাধ্যমে পাকিস্তান ভারতে অস্ত্র, মাদক প্রবেশ করাচ্ছে। ওল্ফ দাবি করেন, পাকিস্তানের গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআই কাশ্মীরে সন্ত্রাসীদের অর্থায়নও করছে।

ইত্তেফাক/এআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত