সিঙ্গাপুরের জনসংখ্যা কমেছে 

সিঙ্গাপুরের জনসংখ্যা কমেছে 
ছবি সংগৃহীত

২০০৩ সালের পর প্রথমবারের মতো সিঙ্গাপুরের জনসংখ্যা হ্রাস পেয়েছে। করোনার কারণেও সম্প্রতি বিদেশি এবং অনেক স্থায়ী বাসিন্দা দেশ ছেড়েছেন। তার প্রভাবই পড়েছে জনসংখ্যার হিসাবে।

বার্ষিক জনসংখ্যা প্রতিবেদন অনুযায়ী, সিঙ্গাপুরে বসবাসরত মানুষের সংখ্যা প্রায় ১৮ হাজার কমে গেছে। মোট জনসংখ্যা দাঁড়িয়েছে প্রায় ৫৭ লাখে, যা আগের বছরের তুলনায় দশমিক তিন ভাগ কম। এর মধ্যে বিদেশিদের সংখ্যা দুই ভাগ কমে প্রায় সাড়ে ১৬ লাখে ঠেকেছে।

এশিয়ায় ব্যবসার অন্যতম প্রাণকেন্দ্র সিঙ্গাপুর করোনার কারণে অর্থনৈতিকভাবে বড় ধরনের ধাক্কা খেয়েছে। সরকারি হিসাবে চলতি বছর জিডিপি প্রবৃদ্ধি পাঁচ থেকে সাত শতাংশ কমে যেতে পারে। এমন অবস্থায় বিদেশিরা দূরে থাক নিজেদের বাসিন্দাদেরই কর্মসংস্থান নিশ্চিত করতে হিমশিম খাচ্ছে সরকার। স্থানীয়দের চাকরি নিশ্চিত করতে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বিদেশি নিয়োগে নানা কড়াকড়িও আরোপ করা হয়েছে। যদিও এ নিয়ে সরকারের মধ্যেই ভিন্নমত রয়েছে। কারণ এর ফলে দীর্ঘমেয়াদে ব্যবসা-বাণিজ্যের আরো ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

এ মাসের শুরুতে প্রধানমন্ত্রী লি সিয়েন লুং তার এক ভাষণেও বলেছেন, ‘‘আমরা সবকিছু বন্ধ করে দিচ্ছি আমাদের দেশে আর বিদেশিদের প্রয়োজন নেই, এমন ভুল ধারণা দেওয়া থেকে আমাদের অবশ্যই সতর্ক থাকতে হবে।’’বিশ্বের নিম্ন জন্মহারের দেশগুলোর মধ্যে অন্যতম সিঙ্গাপুরে বিদেশিরাই জনসংখ্যা বাড়াতে ভূমিকা রেখেছে। গত কুড়ি বছরে সেখানে বিদেশি জনসংখ্যা বেড়েছে দ্বিগুণেরও বেশি। —ডয়চেভেলে

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত