ফ্লোরিডায় আগাম ভোটগ্রহণ শুরু

ফ্লোরিডায় আগাম ভোটগ্রহণ শুরু
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন উপলক্ষে ফ্লোরিডার লেমন সিটির একটি কেন্দ্রে গতকাল আগাম ভোট দিতে ভোটাররা সামাজিক দূরত্ব মেনে লাইনে দাঁড়ান -এএফপি

যুক্তরাষ্ট্রে আগামী ৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য প্রেসিডেন্ট নির্বাচন উপলক্ষে পছন্দের প্রার্থীকে বেছে নিতে ‘কী ব্যাটল গ্রাউন্ড স্টেট’ খ্যাত ফ্লোরিডাসহ কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে শুরু হয়েছে আগাম ভোটগ্রহণ। গতকাল সকাল থেকে আগাম ভোট দিতে শুরু করেছেন স্থানীয় ভোটাররা। এই উপলক্ষে তাদের মধ্যে দেখা যায় বিপুল উত্সাহ। গোটা জ্যাকসনভিলে এলাকায় সকাল থেকেই দলে দলে ভোটাররা বিভিন্ন কেন্দ্রের বাইরে এসে জড়ো হতে থাকে। স্বেচ্ছাসেবীদের এত ভোটারদের নিয়ন্ত্রণে হিমশিম খেতে হয়। কারণ করোনাপরিস্থিতির কারণে কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে কঠোর নির্দেশ ছিল যেন সামাজিক দূরত্ব মেনে সবাই লাইনে দাঁড়িয়ে ভোট দেয়। ভোটাররাও বেশির ভাগ স্থানে সেই নির্দেশনা মেনে লাইনে দাঁড়ান।

ধারণা করা হচ্ছে, ৩ নভেম্বর নির্বাচনের দিন পর্যন্ত বিরাট অংশ ভোটার আগাম ভোটের সুযোগ নেবেন। করোনা ভাইরাসের হাত থেকে রেহাই পেতে ভোটের দিন যেন নির্বাচনী কেন্দ্রে না যেতে হয় সেই জন্য অনেক ভোটার আগাম ভোটাধিকার প্রয়োগ করার এই সুবিধা গ্রহণ করছেন। গতকাল স্থানীয় সময় সকাল ৭টায় সবগুলো ভোটকেন্দ্র উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়। ভোটগ্রহণ শেষ হয় সন্ধ্যা ৭টায়। আজ মঙ্গলবারও একইভাবে ভোটগ্রহণ করা হবে।

এদিকে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের নির্বাচনী জরিপে ডোনাল্ড ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে আছেন ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন। এ কারণে বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাবার ব্যাপারে জোর দিচ্ছেন প্রেসিডেন্ট। গতকালও তিনি বেশ কয়েকটি স্থানে জনসভায় বক্তব্য রাখেন। অন্যদিকে, বৃহস্পতিবার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে তার যে নির্বাচনী বিতর্ক অনুষ্ঠিত হবে তার জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করছেন জো বাইডেন। প্রথম বিতর্কে তিনি বিজয়ী হয়েছিলেন। এতে তার জনপ্রিয়তা ভোটারদের মধ্যে আরো বেড়ে গেছে। ফলে ডেমোক্র্যাট শিবির ট্রাম্প সরকারের ব্যর্থতার বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করে বাইডেনকে দিচ্ছেন সেগুলো ‘স্টাডি’ করে প্রেসিডেন্টকে ধরাশায়ী করার জন্য।

জানা গেছে, এবার মেইলের মাধ্যমে ২ কোটি ৮০ লাখেরও বেশি ভোটার ভোট দিয়েছেন। দলীয় অনুগত, বিদেশ নিয়োজিত মার্কিন সেনা সদস্য ও যারা ভোটের দিন উপস্থিত থাকতে পারবেন না তারাই আগাম ভোটে অংশ নেন। ২০১২ সালে বারাক ওবামার জয়ের ক্ষেত্রেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিল এই ভোট। এদিকে সংবাদ মাধ্যম সিএনএনের সর্বশেষ জরিপ বলছে, রিপাবলিকান ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থন ৪২ শতাংশ। আর তার বিপরীতে বাইডেনের সমর্থন ৫৩ শতাংশ। অর্থাৎ ১১ পয়েন্টে এগিয়ে রয়েছেন বাইডেন। যদিও ট্রাম্প বলেছেন শেষ পর্যন্ত এসব জরিপের ফল কাজ দেবে না।

গভর্নরকে হুমকি: এবারের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যে যদি ট্রাম্প হেরে যান, তাহলে সেখানকার গভর্নর রন ডিস্যান্টিসকে বরখাস্ত করা হবে বলে সতর্ক করেছেন তিনি। এক নির্বাচনী সমাবেশে ট্রাম্প তার ঘনিষ্ঠ সহযোগী ফ্লোরিডার গভর্নরকে বলেন, ‘রন, আমরা এই অঙ্গরাজ্যে বিজয়ী হতে যাচ্ছি তো? আপনারা জানেন আমরা যদি বিজয়ী না হই, তাহলে তার দায় কিন্তু গভর্নরের। যেভাবেই হোক আমি তাকে বরখাস্ত করব।’

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত