করোনা: অভাবে সাপ, ইঁদুর খাচ্ছেন মিয়ানমারের বাসিন্দারা

করোনা: অভাবে সাপ, ইঁদুর খাচ্ছেন মিয়ানমারের বাসিন্দারা
অভাবে সাপ, ইঁদুর খাচ্ছেন মিয়ানমারের বাসিন্দারা ।

গত মার্চ মাসে মিয়ানমারে যখন করোন ভাইরাস আঘাত হানে তখন ৩৬ বছর বয়সী মা সু তার সালাদের দোকানটি বন্ধ করে দেন। খাবার কিনতে বন্ধক রাখতে হয় তার স্বর্ণালংকারগুলো।

এরপর সেপ্টেম্বরে সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ আঘাত হানলে ইয়াঙ্গুনের এই নারীকে ফের দোকান বন্ধ রাখতে হয়। এবার খাবার কিনতে তাকে বিক্রি করতে হয়েছে কাপড়, প্লেট ও খাবারের পাত্র। বিক্রি করার মতো সবকিছু যখন ফুরিয়ে গেলো তখন মা সু'র নির্মাণ শ্রমিক স্বামী মিয়ানমারের সবচেয়ে বড় শহরের নর্দমায় শিকার ধরতে শুরু করেন।

মা সু কাঁদতে কাঁদতে জানান, “মানুষ ইঁদুর এবং সাপ খাচ্ছে”। কোনও আয় না থাকায় তাদের বাচ্চাদেরকে খাওয়ানোর জন্য এসব খাবার খেতে হচ্ছে বলে জানিয়েছেন মা সু।

এই মা সু ইয়াঙ্গুনের দরিদ্রতম এলাকাগুলোর মধ্যে অন্যতম হ্লাইং থার ইয়ারে থাকে। সেখানে বেশিরভাগ মানুষ ক্ষুধা মেটাবার জন্য এই ধরনের শিকার খুঁজছে। রাতের বেলাতেও চলে শিকার ধরা।

মিয়ানমারে এ পর্যন্ত ৪০ হাজারের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। দেশটিতে করোনায় এ পর্যন্ত মারা গেছেন এক হাজারের বেশি মানুষ। করোনার সংক্রমণ রোধে

লকডাউনের কারণে মা সু-র মতো ইয়াঙ্গুনের হাজার হাজার বাসিন্দা কর্মহীন হয়ে পড়েছে

স্থানীয় প্রশাসক নায় মিন তুন জানান , হ্লাইং থার ইয়ারের ৪০ শতাংশ বাসিন্দা সহযোগিতা পেয়েছে । তবে অধিকাংশ কর্মস্থল বন্ধ থাকায় মানুষজন আরও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

ইত্তেফাক/এআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত