সহিংসতা থামাতে সর্বোচ্চ সতর্কতায় নাইজেরিয়া পুলিশ

সহিংসতা থামাতে সর্বোচ্চ সতর্কতায় নাইজেরিয়া পুলিশ
নাইজেরিয়ায় সহিংসতা।

নাইজেরিয়ার চলমান সহিংসতা ও লুটপাটের বন্ধের জন্য সমস্ত পুলিশ প্রশাসনকে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির পুলিশ প্রধান।

নাইজেরিয়ান পুলিশ প্রধান মোহাম্মদ আদমু বলেন,যে জনসাধারণের মিশে গিয়ে অপরাধীরা নানা অপরাধ করছে শুধু তাই না তারা নানা রকমের সহিংসতা করছে।

তিনি আরো বলেন, বিক্ষোভের নামে তাদের এমন সহিংসটা,হত্যা,লুটপাটের বিরুদ্ধে পুলিশ কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

পুলিশের বিশেষ বাহিনী স্পেশাল অ্যান্টি-রবারি স্কোয়াডের (সার্স) ভেঙে দেয়া ও পুলিশের বর্বরতা বন্ধের আহ্বান জানিয়ে তরুণরা গত ৭ অক্টোবর থেকে এ বিক্ষোভ শুরু করেছিল।

দেশটির প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ বুহারি গত রোববার সার্স ভেঙে দেওয়ার ঘোষণা দিলেও বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে। বিক্ষোভকারীরা এই ঘোষণায় সন্দেহ প্রকাশ করে বলেছেন, তাঁদের মনে হচ্ছে সার্স কর্মকর্তারা তখনো মোতায়েন ছিল।

গ্রেপ্তারকৃতদের নিঃশর্ত মুক্তিই বিক্ষোভকারীদের মূল দাবি হয়ে উঠেছিল। মঙ্গলবার দেশের বৃহত্তম শহর লোগোসে শান্তিপূর্ণ ভাবেই বিক্ষোভ করছিল সাধারণ জনতা কিন্তু নিরস্ত্র আন্দোলনকারীদের উপর গুলি করার পরে তারা সহিংস হয়ে ওঠে।

আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল বলেছে, বিক্ষোভে ১২ জনকে হত্যা করা হয়েছে। সেখানে বেশ কিছু মানুষের প্রাণহানির বিষয়ে নির্ভরযোগ্য তথ্য পেয়েছে তারা। তবে দেশটির সেনাবাহিনী এমন খবর নাকচ করে দিয়েছে। স্থানীয় প্রশাসন ঘটনা তদন্তের প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

করোনা মহামারিতে বিতরণের জন্য বেশ কয়েকটি গুদামে খাদ্যজাত ছিল কেন্দ্রীয় শহর বুকুরুতে। গতকাল শনিবার সরকারি গুদামে লুটপাটের মতো ঘটনা ঘটায় কয়েক শতাধিক বিক্ষোভকারী ।

রাষ্ট্রপতি বুহারি বলেছেন যে নাইজেরিয়ার সর্বত্র বিক্ষোভ শুরু হওয়ার পর থেকে রাস্তায় সহিংসতায় সাধারণ জনগণ,পুলিশও সেনা কর্মকর্তা সহ কমপক্ষে ৬৯ জন মারা গেছে।

শনিবার(২৪ অক্টোবর) নাইজেরিয়ার পুলিশ বাহিনী এক টুইটে জানায়, মহাপরিদর্শক জনাব আদমু তাদের বিক্ষোভকারীদের সাথে ভালো আচরণ করতে বলেছেন। এবং সকল বৈধ উপায় ব্যবহার করার নির্দেশ দিয়েছেন।

এদিকে গত শুক্রবার (২৩অক্টোবর)লাগোসে বিক্ষোভ আয়োজনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনকারী একটি দল সাধারণ লোকজনকে ঘরে বসে থাকার আহ্বান জানিয়েছে।

ইত্তেফাক/এএইচপি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত