মুছে ফেলা হলো মাহাথিরের টুইট 

মুছে ফেলা হলো মাহাথিরের টুইট 
মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।

ফ্রান্সের গির্জা হামলাকে সমর্থন দিয়ে মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের করা টুইট বার্তাগুলো মুছে ফেলা হয়েছে। সহিংসতার প্রশংসা করে বিধি লঙ্ঘন করায় মাহাথিরের বার্তাগুলো মুছে ফেলা হয়েছে বলে জানিয়েছে টুইটার কর্তৃপক্ষ।

এদিকে ফ্রান্সের ডিজিটাল শিল্প ও যোগাযোগ বিষয়ক জুনিয়র মন্ত্রী সেড্রিক ও বলেছেন, তিনি টুইটারের স্থানীয় ব্যবস্থাপনা পরিচালকের সঙ্গে কথা বলেছেন এবং মাহাথিরের অ্যাকাউন্টটি বাতিল করে দেয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন।

এ নিয়ে একটি টুইট বার্তায় সেড্রিক ও বলেন, যদি টুইটার এটি না করে তাহলে তারা আনুষ্ঠানিক হত্যার আহ্বানকে সহযোগীতা করবে।

এর আগে টুইট বার্তায় মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ বলেন, আমি মত প্রকাশে স্বাধীনতায় বিশ্বাস করি তবে এটি কাওকে অপমান করে নয়। মাহাথির বলেন, অতীতেও উপনিবেশ তৈরির সময় ফ্রান্স লাখ লাখ মানুষকে নির্বিচারে হত্যা করেছে, যার মধ্যে বেশিরভাগই মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ ছিলেন। তাই ফ্রান্সের লাখ লাখ মানুষকে হত্যা করার অধিকার রয়েছে মুসলিমদের।

গতকাল বৃহস্পতিবার ফ্রান্সের নিস শহরের নটরডেম গির্জায় হামলা চালিয়ে দুই নারীসহ তিনজনকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয়। জানা গেছে, অভিযুক্ত হামলাকারী কয়েকদিন আগে তিউনিসিয়া থেকে ফ্রান্সে এসেছিলেন ।

এর আগে গত ১৬ অক্টোবর প্য়ারিসের রাস্তায় শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটিকে 'আল্লাহু আকবর' বলে হত্যা করেছিল এক তরুণ। কারণ, ওই শিক্ষক ক্লাসে মহানবীর কার্টুন দেখিয়ে মতপ্রকাশের স্বাধীনতার ব্যাখ্যা দিয়েছিলেন। শিক্ষকের ওপর হামলাকারী আবদৌলখ নামের ওই তরুণ ঘটনাস্থলেই পুলিশের গুলিতে নিহত হয়েছিলেন। এই হত্যাকাণ্ডের পর ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট বলেছেন যে, স্যামুয়েল পাটি নামের ওই শিক্ষককে খুন করার কারণ ইসলামপন্থীরা আমাদের ভবিষ্যত কেড়ে নিতে চায়, কিন্তু ফ্রান্স কার্টুন প্রদর্শন বন্ধ করবে না। ধর্ম হিসেবে ইসলাম আজ বিশ্বজুড়ে সংকটে রয়েছে।এ ঘটনায় মুসলিম বিশ্বে ক্ষোভের ঝড় ওঠে। বাংলাদেশসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বিক্ষোভ সমাবেশ হচ্ছে। এমনকি ফ্রান্সের পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েছে বিশ্বের বিভিন্ন মুসলিম দেশও।

ইত্তেফাক/এআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত