যুক্তরাজ্যে 'কুমারীত্ব পরীক্ষার' চলছে রমরমা ব্যবসা 

যুক্তরাজ্যে 'কুমারীত্ব পরীক্ষার' চলছে রমরমা ব্যবসা 
যুক্তরাজ্যে 'কুমারীত্ব পরীক্ষার' চলছে রমরমা ব্যবসা। ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন চিকিৎসাকেন্দ্রে নারীদের বিতর্কিত 'কুমারীত্ব পরীক্ষা' করা হচ্ছে বলে বিবিসির এক অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে।

বিবিসির ১০০ নারী ও নিউজবিট বিভাগের সাংবাদিকরা তাদের অনুসন্ধানে জেনেছেন ব্রিটেনে বেশ কিছু বেসরকারি ক্লিনিক এই ব্যবসায় জড়িত রয়েছে। তারা 'কুমারীত্ব পুনরুদ্ধার' করার বিজ্ঞাপন দেয় এবং যোগাযোগ করার তারা জানায় তথাকথিত কুমারীত্ব পরীক্ষা করার জন্য খরচ পড়বে ১৫০ থেকে ৩০০ পাউন্ডের মধ্যে।

বিবিসি এধরনের ২১টি ক্লিনিক চিহ্ণিত করেছে। এর মধ্যে ১৬টি ক্লিনিকের সাথে বিবিসির সাংবাদিকরা যোগাযোগ করতে সক্ষম হন, যাদের মধ্যে সাতটি ক্লিনিক নিশ্চিত করে যে তারা "কুমারীত্ব পরীক্ষা" করে থাকে। বাকিগুলো কী করে, তা তারা পরিষ্কার করে ব্যাখ্যা করেনি।

তবে প্রত্যেকটি চিকিৎসা কেন্দ্র বলেছে তারা ছিঁড়ে যাওয়া হাইমেন ঠিক করে দেবার জন্য অস্ত্রোপচার করবে, যার জন্য খরচ লাগবে ১,৫০০ থেকে ৩,০০০ পাউন্ডের মধ্যে। ব্রিটেনের জাতীয় স্বাস্থ্য ব্যবস্থা এনএইচএস ইংল্যান্ডের তথ্য বলছে গত পাঁচ বছরে হাইমেন-মেরামতের জন্য অস্ত্রোপচার হয়েছে ৬৯টি।

নিউজবিট একজন নারীর সাথে কথা বলেছে যিনি তার সমস্যা নিয়ে কর্ম নির্ভানা নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার শরণাপন্ন হয়েছিলেন। এই সংস্থা তথাকথিত পারিবারিক সম্মান রক্ষার কারণে এবং জোরপূর্বক বিয়ে দেবার জন্য নির্যাতনের শিকার নারীদের সাহায্য করে থাকে।

"আমার বাবা-মায়ের সাথে আমার সম্পর্কটা ছিল খুবই মানসিকভাবে নির্যাতনের একটা সম্পর্ক। তারা চেয়েছেন আমি তাদের ঠিক করে দেয়া ছেলেকে বিয়ে করব," তিনি বলেন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং জাতিসংঘ নারীর শরীরের ভেতর এধরনের পরীক্ষা চালানোকে মানবাধিকার লংঘন বলে মনে করছে এবং এই পরীক্ষা ব্যবস্থা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে।

সমালোচকরা বলছেন এই পরীক্ষা পদ্ধতি অবৈজ্ঞানিক এবং একজন মেয়ে কুমারী কিনা এই পরীক্ষা তা নিশ্চিত করতে পারে না। এই পরীক্ষা নির্যাতনের একটা হাতিয়ার হিসাবেও ব্যবহার করা হতে পারে।

এতে যোনিপথ পরীক্ষা করে দেখা হয় নারীর হাইমেন বা যোনিমুখের সূক্ষ্ম পর্দা অক্ষত আছে কি না। বিবিসি

ইত্তেফাক/এসআর

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত