ভ্যাকসিন বিভ্রান্তির ব্যাখ্যা দিলো অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও অক্সফোর্ড  

ভ্যাকসিন বিভ্রান্তির ব্যাখ্যা দিলো অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও অক্সফোর্ড  
ছবি : সংগৃহীত

করোনা ভ্যাকসিনের ‘ত্রুটি’জনিত বিভ্রান্তি সম্পর্কে নিজেদের ব্যাখ্যা উপস্থাপন করলো অ্যাস্ট্রাজেনেকা ও অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়। ভ্যাকসিন নিয়ে বিভ্রান্তি দূর করতে এবং এর কার্যকারিতা যাচাইয়ে অতিরিক্ত ট্রায়ালের ব্যাপারেও ঘোষণা দিয়েছে তারা।

অক্সফোর্ড গত সোমবার ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের প্রাথমিক রিপোর্ট প্রকাশ করে জানায়, তারা গড়ে ৭০ শতাংশ সফল হয়েছে। দু’টি প্রক্রিয়ায় ট্রায়াল চলেছে। একই ভ্যাকসিন, এক দলকে দেওয়া হয়েছিল দেড় ডোজ়, অন্য দলকে দেওয়া হয়েছিল দুই ডোজ়। যাঁদের কম ডোজ় দেওয়া হয়েছিল, তাঁদের শরীরে অক্সফোর্ডের তৈরি ভ্যাকসিন ভাল কাজ দিয়েছে। ৯০ শতাংশ কার্যকারিতা প্রমাণ করেছে। কিন্তু যাঁদের বেশি ডোজ় দেওয়া হয়েছিল, তাঁদের ক্ষেত্রে মাত্র ৬২ শতাংশ কাজ দিয়েছে ভ্যাকসিন। ‘গড়ে’ ৭০ শতাংশ নম্বর পেয়েছে তারা।

তবে টিকা সম্পর্কে কিছু অস্পষ্ট তথ্যের কারণে ভ্যাকসিনের সাফল্য নিয়ে বিতর্ক শুরু হয়। বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, অক্সফোর্ড উপস্থাপিত ডাটাগুলো নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে। সে প্রশ্নটি এর নিরাপত্তা নিয়ে নয়, বরং এ ভ্যাকসিনটি কতটা কার্যকর তা নিয়ে।

আরও পড়ুন: ‘থ্যাংকস গিভিং ডে’-তে আমেরিকায় ৯০ হাজার করোনায় আক্রান্ত

বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ব্লুমবার্গকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অ্যাস্ট্রাজেনেকার প্রধান নির্বাহী প্যাসকাল সরিয়ট জানান, সংস্থাটি ভ্যাকসিনের কার্যকরিতা যাচাইয়ের জন্য অতিরিক্ত ট্রায়ালের ব্যবস্থা করছে।

অ্যাস্ট্রাজেনেকার তরফে বলা হয়েছে, ভ্যাকসিন ট্রায়ালে উচ্চতম পর্যায় মেনে চলা হয়েছে এবং ভুল শোধরাতে গোটা প্রক্রিয়ার আরও বিশ্লেষণ করা হচ্ছে। আবার অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, স্বেচ্ছাসেবীদের একাংশকে কম ডোজের টিকা দেওয়া হয়েছে, তা নিশ্চিত। তাদের দাবি, এখন প্রতিষেধক মাপার সঠিক প্রক্রিয়া নির্ধারিত হয়েছে এবং এবার থেকে উৎপাদিত টিকার পরিমাণ সব সময় অপরিবর্তিত থাকবে। বিবিসি।

ইত্তেফাক/এএইচপি

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত