বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর প্রথম নির্বাচন জম্মু ও কাশ্মীরে

বিশেষ মর্যাদা বাতিলের পর প্রথম নির্বাচন জম্মু ও কাশ্মীরে
জম্মু ও কাশ্মীরে নির্বাচন।

৩৭০ ধারা বাতিল করার পর জম্মু ও কাশ্মীরে প্রথমবার শুরু হয়েছে নির্বাচন। জম্মু ও কাশ্মীর ডিস্ট্রিক্ট ডেভেলপমেন্ট কাউন্সিলের আট দফার মধ্যে প্রথম দফার ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে স্থানীয় শনিবার সকাল ৭টা থেকে। চলবে দুপুর দু’টো পর্যন্ত।

আট দফায় জম্মু ও কাশ্মীরের মোট ২৮০টি আসনে ভোটগ্রহণ হবে। ভোটগ্রহণ পর্ব শেষ হবে ১৯ ডিসেম্বর। ফলপ্রকাশ ২২ ডিসেম্বর। আট দফার মধ্যে এই পর্বে ডিডিসির মোট ৪৩ আসনে ভোটগ্রহণ হবে। ২৫টি কাশ্মীরে এবং ১৮টি জম্মুতে। মোট ৭ লাখ বৈধ ভোটার এই পর্বে ভোট দিতে পারবেন।

৩৭০ ধারা বাতিল করার পর এক বছরেরও বেশি সময় পেরিয়েছে। বিশেষ মর্যাদা বাতিল হওয়ার পর এই প্রথম কোনও নির্বাচন হচ্ছে কাশ্মীরে। স্বাভাবিকভাবেই উপত্যকা তথা জম্মুতে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সন্ত্রাসবাদী হামলার আশঙ্কায় মোতায়েন হয়েছে অতিরিক্ত আইন শৃঙ্খলার বাহিনীর সদস্য। পাক সীমান্তেও নজরদারি আরও বাড়ানো হয়েছে।

জম্মু ও কাশ্মীরের নির্বাচনে মূল লড়াই পিডিপি , ন্যাশনাল কনফারেন্স-সহ কাশ্মীরের বিভিন্ন ছোট রাজনৈতিক দলের জোট অর্থাৎ গুপকার জোটের বিরুদ্ধে বিজেপির। কংগ্রেস প্রথমে নিজেদের গুপকার জোটের অংশ হিসেবে ঘোষণা করলেও, জাতীয় রাজনীতির বাধ্যবাধকতার জন্য পরে পিছিয়ে এসেছে। গুপকার জোটের অন্যতম নেত্রী মেহেবুবা মুফতি দাবি করেছেন, ভোটের আগে তাঁদের প্রার্থীদের সঠিকভাবে প্রচার করতে দেওয়া হয়নি। যদিও নির্বাচন কমিশন সেই দাবি খারিজ করে দিয়েছে।

ইত্তেফাক/এআর

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত