ট্রাম্পকে নিষিদ্ধের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কমেছে ভুয়া তথ্য  

ট্রাম্পকে নিষিদ্ধের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কমেছে ভুয়া তথ্য  
সংগৃহীত ছবি।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটল হিলে হামলার পর সহিংসতা উস্কে দেবার ঝুঁকি থাকার কারণে বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের টুইটার অ্যাকাউন্ট স্থায়ীভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এরপর থেকেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মার্কিন নির্বাচন সংক্রান্ত ভুল তথ্য প্রায় ৭৩ শতাংশ কমে গেছে। এমনটি জানিয়েছে জিগন্যাল ল্যাব নামের একটি গবেষণা সংস্থা।

গবেষণায় বলা হয়েছে, টুইটারে ট্রাম্পকে আজীবন নিষিদ্ধ হওয়ার পরপরই দ্রুত ভুয়া তথ্যগুলো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে সরে গেছে। গত ৩ নভেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে নির্বাচন হওয়ার পর থেকেই ট্রাম্প এবং তার সমর্থকরা কোনো রকম তথ্য প্রমাণ উত্থাপন ছাড়াই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোতে নির্বাচনের জালিয়াতির অভিযোগ তুলছিলেন।

৬ জানুয়ারি নতুন ডেমোক্র্যাট প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জয় অনুমোদনের দিনে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস ভবন ক্যাপিটলে হামলা চালায় ট্রাম্প সমর্থকরা। সেই বিক্ষুব্ধদের উদ্দেশে ট্রাম্প টুইটে লিখেছিলেন ‘আমি তোমাদের ভালোবাসি’। তাদের ‘দেশপ্রেমিক’ বলেও উল্লেখ করেছিলেন ট্রাম্প। এরপর ৮ জানুয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্পকে টুইটার থেকে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। টুইটার বলছে, "ভবিষ্যতে সহিংসতা উস্কে দেবার ঝুঁকি" থাকার কারণে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

ইত্তেফাক/এআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x