চীনের ‘শোষণে’ অন্ধকারে ডুবেছিলো পাকিস্তান 

চীনের ‘শোষণে’ অন্ধকারে ডুবেছিলো পাকিস্তান 
পাকিস্তানের অধিকাংশ এলাকা বিদ্যুবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছিল।

পাকিস্তানের বিদ্যুৎখাতে কয়েক বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিনিয়োগ রয়েছে চীনের। আর এই খাত থেকে অতিরিক্ত মুনাফা আদায় করতে গিয়েই চলতি মাসে পাকিস্তানের জাতীয় বিদ্যুৎ গ্রিডে যান্ত্রিক গোলযোগ দেখা গিয়েছিলো।

গত বছরের এপ্রিলে পাকিস্তানের প্রখ্যাত সাংবাদিক এফএম শাকিল একটি মতামতে লেখেন, পাকিস্তানের সিকিউরিটি এন্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের সাবেক সভাপতির নেতৃত্বে যে কমিটি করা হয়েছিলো তা দেখেই বুঝা যায় যে বিদ্যুৎখাতে চীন কেমন দুর্নীতি চালাচ্ছে। ঐ প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চীন-পাকিস্তান ইকোনমিক করিডোরের প্রজেক্টের আওতায় চীনের যে কোম্পানিগুলো পাকিস্তানের বিদ্যুৎখাতে বিনিয়োগ করছে তারা সরকারের নিয়ম উপেক্ষে করে ৫০ থেকে ৭০ শতাংশ পর্যন্ত মুনাফা করছে।

শাকিল তার মতামতে আরো লেখেন, চীনের সেনারা বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য বেশি বিনিয়োগ করছে। তবে তারা বিতরণ ব্যবস্থাকে গুরুত্ব দিচ্ছে না। বিশ্লেষকরা বলছেন, চীনের অর্থায়নের তৈরি বিদ্যুৎ প্রজেক্টগুলো তৈরি করার পর বিতরণ ব্যস্থার জন্য আলাদা অবকাঠামো গঠন করতে হয় যাতে বছরে ২৫ শতাংশ আর্থিক ক্ষতি হয়।

আরও পড়ুন: অন্ধকারে পাকিস্তান

চীন-পাকিস্তান ইকোনমিক করিডোর প্রজেক্টের মাধ্যমে চীনে পাকিস্তানে ৩০ বিলিয়ন ডলারের বিনিয়োগের লক্ষ্যমাত্র নির্ধারণ করেছে। জানা গেছে, এই লক্ষ্যমাত্রার আওতায় পাকিস্তানে ২৭টি পাওয়ার প্ল্যান্ট গড়ে তুলবে চীন।

ইত্তেফাক/এআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x