রিপাবলিকান পার্টি কি ভাঙছে?

নতুন ‘প্যাট্রিয়ট পার্টি’ গঠনের পরিকল্পনা ট্রাম্পের
রিপাবলিকান পার্টি কি ভাঙছে?
সদ্য সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প । ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রে রিপাবলিকান পার্টিতে ভাঙন নিয়ে গুঞ্জন শুরু হয়েছে। সদ্য বিদায়ি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প নতুন একটি রাজনৈতিক দল গঠনের পরিকল্পনা করছেন। এ বিষয়ে তিনি তার সহযোগীদের সঙ্গে আলাপও করেছেন। গত ৩ নভেম্বরের নির্বাচনের পর ফলাফল নিয়ে রিপাবলিকান অনেক নেতার সঙ্গে ট্রাম্পের বিরোধ তৈরি হয়। খবর ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল ও দ্য ফিলাডেলফিয়া ইনকোয়েরারের

ট্রাম্পের নতুন দল কেন?

বিদায় নেওয়ার আগেই ডোনাল্ড ট্রাম্প তার অনেক সহযোগীর সঙ্গে তৃতীয় দল গঠন নিয়ে আলোচনা করেছেন। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফল ঘোষণার পরই তার সঙ্গে রিপাবলিকান পার্টির সিনিয়র নেতাদের বিরোধ তৈরি হয়। অনেকে তার কাছ থেকে দূরে সরে যান। এমনকি গত মঙ্গলবারও সিনেটের সদ্য বিদায়ি সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা মিচ ম্যাককোনেল ক্যাপিটল হিলে হামলায় ট্রাম্পের উসকানি আছে বলে উল্লেখ করেন। ট্রাম্পের ধারণা, তৃতীয় দল গঠনের হুমকিতে সিনেটে তার বিরুদ্ধে অভিশংসনের পক্ষে ভোটদান থেকে বিরত থাকবেন অন্য রিপাবলিকান সিনেটররা। দল গঠনের জন্য ট্রাম্প ৭০ মিলিয়ন ডলার তহবিলও জোগাড় করেছেন বলে একটি সূত্র জানিয়েছে। রিপাবলিকান পার্টিতে যেসব সিনেটর এবং কংগ্রেসম্যান ট্রাম্পের অভিশংসনের পক্ষে ভোট দিয়েছেন তারা এখন চাপে আছেন। দলের মধ্যে তারা যেন টিকে থাকতে পারেন সেই চেষ্টাই করছেন। বিশেষ করে সিনেটর চেনি ট্রাম্পের অভিশংসনে সমর্থন দিয়ে বিপদে আছেন।

আরও পড়ুন: শাসনামলে ৩০ হাজারের বেশি মিথ্যা বলেছেন ট্রাম্প

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ‘প্যাট্রিয়ট’ শব্দটি দেশের চরমপন্থি গোষ্ঠীই সাধারণত ব্যবহার করেন। ইভাঙ্কা ট্রাম্পও তার টুইটার বার্তায় সম্প্রতি ‘প্যাট্রিয়ট’ শব্দটি ব্যবহার করেছেন। ফলে ট্রাম্পের পক্ষে কিছু লোক হয়তো এই পার্টিতে আসতে পারেন। তবে এটা ঠিক যে, ২০১৬ সালে নির্বাচনি প্রচারণায় অনেকেই নতুন করে রাজনীতিতে এসেছেন যারা আগে কখনো রিপাবলিকান পার্টিতে যোগ দেননি। এসব মানুষ হয়তো ট্রাম্পের নতুন পার্টিতে আসবেন। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, রিপাবলিকান পার্টি বিভক্ত হলে তা হবে ডেমোক্র্যাটদের জন্য জয়জয়কার অবস্থা। কারণ এর ফলে ভবিষ্যতে ডেমোক্র্যাটদের জয় আরো সহজ হবে। তবে ডোনাল্ড ট্রাম্প সত্যিই আলাদা পার্টি গঠনে কতটা গুরুত্ব দিয়েছেন তা এখনো জানা যায়নি। কারণ এ বিষয়ে ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ কেউই নাম প্রকাশ করতে আগ্রহী নন।

ইত্তেফাক/এএইচপি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x