বাবার শেষকৃত্যের জন্য যেভাবে ভারতে এলেন দুবাইয়ে আটকে পড়া ব্যক্তি

বাবার শেষকৃত্যের জন্য যেভাবে ভারতে এলেন দুবাইয়ে আটকে পড়া ব্যক্তি
ছবি: এএফপি।

ভারতীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকান নাগরিক নরেশ রাম তার বাবার শেষ কৃত্য অনুষ্ঠানে অংশ নিতে ৪৮ ঘণ্টার বেশি অপেক্ষা করেন দুবাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। করোনা প্রাদুর্ভাবের মধ্যে ট্র্যাজিক পরিস্থিতিতে ভারতে ভিন্ন ভাবে প্রবেশের অনুমতি পেয়েছিলেন তিনি।

সংবাদ মাধ্যম খালিজ টাইমসের বরাতে জানা যায়,বৃহস্পতিবার রাতে পিতার মৃত্যুর কথা শোনার সাথে সাথেই পেনসিলভেনিয়ার ফিলাডেলফিয়ায় বাড়ি থেকে রৌনা হন রাম।করোনা বিধিনিষেধের কারণে তাকে বেঙ্গালুরুগামী ফ্লাইটে উঠতে না দেওয়াইয়। তিনি ডিএক্সবিতে পৌঁছান একদিন পর। করোনা বিধি অনুযায়ী পর্যটক ভিসাধারীদের বর্তমানে ভারতে প্রবেশের অনুমতি নাই। কেবলমাত্র ভারতীয় নাগরিক, বিদেশের নাগরিকত্বের (ওসিআই) কার্ডধারীরা এবং পার্সন অফ ইন্ডিয়ান অরিজিন (পিআইও) কার্ডধারীদের এই দেশে প্রবেশের অনুমতি রয়েছে।

আরও পড়ুন: ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসে তাইওয়ানের শুভেচ্ছা

নিউইয়র্ক থেকে যাত্রা করার আগে তিনি টুরিস্ট ভিসার জন্য আবেদন করেছিলেন তিনি। কিন্তু নিউইয়র্কের ভারতীয় কনস্যুলেট কোনও পর্যটক ভিসার অনুমোদন দেয়নি।

পরে তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাত হয়ে ভারতে প্রবেশ করেন।প্রায় ৪৮ ঘন্টারও বেশি সময় আটকে থাকার পরে এমিরেটস এয়ারলাইন্সে সোমবার সকালে বেঙ্গালুরে যাত্রা শুরু করেন।

আমেরিকার একটি ফার্মাসিউটিক্যাল সংস্থার কর্মচারী রাম খালিজ টাইমসকে বলেছেন, “আমার বাবা ৮১ বছর বয়সী ছিলেন। কার্ডিয়াক ব্যর্থতার কারণে তিনি মারা যান। যেহেতু আমি তাঁর একমাত্র পুত্র, তাই আমাদের রীতিনীতি অনুসারে আমাকে তার শেষ প্রথা সম্পন্ন করতে ভারতে নেমে যেতে হয়েছিল। আমি কনস্যুলেট কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। তাদের সাহায্যের কারণের আমি বেঙ্গালুরে পৌছাতে পেরেছি।

আরও পড়ুন: দক্ষিণ এশিয়ার তিনটি দেশের ওপর ভ্রমণ সতর্কতা আমেরিকার

এদিকে কনস্যুলেটের এক কর্মকর্তা খালিজ টাইমসকে বলেছেন: “আমরা সবসময় এমন লোকদের সমর্থন করি যারা মিঃ রামের মতো পরিস্থিতিতে পড়েছেন। এমনকি আমরা বিমানবন্দরে আটকে থাকা ভারতীয় নাগরিকদের জন্য জরুরি ভ্রমণ অনুমতি দিয়ে থাকি। ভারতীয়দের যেকোনো বিপদে আমরা তাদের পাশে আছি।

ইত্তেফাক/এএইচপি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x