রাষ্ট্রীয় মদদে মিথ্যা প্রচারণা চালাচ্ছেন পাকিস্তানি ফারহান

রাষ্ট্রীয় মদদে মিথ্যা প্রচারণা চালাচ্ছেন পাকিস্তানি ফারহান
ফারহান ভার্ক। ছবি: সংগৃহীত

ফারহান ভার্ক নামে এক পাকিস্তানি যুবক রাষ্ট্রীয় মদদে টুইটারে ভারতের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মিথ্যা প্রচার চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা এক প্রতিবেদনে এ অভিযোগ তুলে ধরে।

খবরে বলা হয়েছে, 'টিম ইমরান খান' নামে এক টুইটার হ্যান্ডেল পরিচালনা করেন ফারহান। তার অধীনে এক হাজারেরও বেশি স্বেচ্ছাসেবী এই 'প্রোপাগান্ডা যুদ্ধ' চালিয়ে যাচ্ছেন।

ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনার সময়ে ভির্ক টুইটার ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের অভিযোগকে বিভিন্নভাবে অমূলক প্রমাণ করার চেষ্টা করেন।

এই যুবক দাবি করেছেন, তিনি জাতীয়ভাবে যে কোনও হ্যাশট্যাগ ট্রেন্ডি করতে পারেন। যখন ভারত-পাকিস্তান উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে, তখন টুইটার হ্যাশট্যাগের মাধ্যমে অনলাইন আক্রমণ চালান ভার্ক।

ভার্ক একটি হ্যাশট্যাগ ট্রেন্ডি বানাতে রাজনীতিবিদ, সাংবাদিক এবং যারা তার 'ব্ল্যাক বুকে' আছে তাদের এডিট করা ছবিসহ এজেন্ডাটি রিটুইট করেন। আল জাজিরার হাশেম চিমা রিপোর্ট করেছেন, কারিগরি ফলানো ইমেজ ও ক্যাপশনগুলি ভুল, অবিশ্বাস্য, অভিযুক্ত এবং কখনও কখনও মানহানিকর হয়।

প্রায় ৩ লাখ ফলোয়ারসহ দু'টি পৃথক টুইটার অ্যাকাউন্ট এবং 'টিম ইমরান খান' নামে এক হাজারেরও বেশি স্বেচ্ছাসেবীর একটি দল নিয়ে ভার্ক পাকিস্তানি টুইটারে নিজের জন্য একটি অনন্য স্থান তৈরি করেছেন।

আল জাজিরা আরও জানিয়েছে, ভার্কের অনুসারীদের কাছে তিনি একজন নেতা। সরকারি মন্ত্রীদের কাছে তিনি একজন প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ত্ব, যিনি তাদের প্রতিদ্বন্দ্বী বা কোনও বিশেষ কারণে তাদের বিরুদ্ধে লড়াই করতে পারেন। অন্য সকলের কাছে তিনি হলেন এক ট্রল যিনি জাতীয়তাবাদী হ্যাশট্যাগ প্রচারের মাধ্যমে টুইটারকে নিরলসভাবে দূষিত করছেন।

ইত্তেফাক/এআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x