সৌদিতে হুতি বিদ্রোহীদের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

সৌদিতে হুতি বিদ্রোহীদের ক্ষেপণাস্ত্র হামলা
[ছবি: সংগৃহীত]

সৌদি আরবের তেল শিল্পের কেন্দ্রস্থল এবং রাষ্ট্রীয় তেল কোম্পানি আরামকোর পেট্রোলিয়াম রপ্তানির প্রধান বন্দর রাস তানুরসহ বিভিন্ন স্থাপনায় হামলা চালিয়েছে ইয়েমেনের হুতি বিদ্রোহীরা। পাশাপাশি কয়েকটি সামরিক ঘাঁটিতেও হামলা চালানো হয়।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রবিবার ড্রোন এবং ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে এসব হামলা চালায় হুতি বিদ্রোহীরা। তবে রিয়াদের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, এগুলো বৈশ্বিক জ্বালানি নিরাপত্তার ওপর ব্যর্থ হামলা।

এ বিষয়ে হুতি বাহিনীর মুখপাত্র ইয়াহিয়া সারিয়ী বলেন, আরামকোর স্থাপনাগুলোর পাশাপাশি দাম্মাম, আসির ও জাজান শহরে সৌদি সামরিক স্থাপনাগুলোকে লক্ষ্য করে ১৪টি ড্রোন ও ৮টি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের মাধ্যমে এসব হামলা চালানো হয়েছে। পরে এক বিবৃতিতে সৌদি জ্বালানি মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, হামলায় কোনো হতাহত কিংবা ক্ষয়ক্ষতির ঘটনা ঘটেনি।

সৌদি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, সামরিক ড্রোনটি সমুদ্রের দিক থেকে এসে রাস তানুর তেল শোধনাগার এবং বিশ্বের বৃহত্তম অফশোর তেল লোডিং সুবিধার পাশেই আঘাত হেনেছে। তবে কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।

সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, লক্ষ্যে পৌঁছানোর আগেই ড্রোন এবং ক্ষেপণাস্ত্রগুলোকে ধ্বংস করে দেওয়া হয়েছে।

ইয়েমেনে দখলদারিত্বকে কেন্দ্র করে হুতি বিদ্রোহী এবং সৌদি আরবের মধ্যকার সংঘাত দীর্ঘদিনের। তবে সাম্প্রতিক সময়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেড়েছে। বিশেষ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের শাসনামলে তাদের সহায়তায় ইয়েমেনে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের হামলা বৃদ্ধি পায়।

ইত্তেফাক/টিএ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x