হঠাৎ আফগানিস্তান সফরে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

হঠাৎ আফগানিস্তান সফরে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী
অ্যান্টনি ব্লিংকেন। ছবি: সংগৃহীত

কোনো ধরনের পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই আফগানিস্তান সফরে এসেছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন। আজ বৃহস্পতিবার (১৫ এপ্রিল) ব্রাসেলস থেকে তিনি সরাসরি কাবুলে এসে পৌঁছান। মূলত দেশটি থেকে মার্কিন ও সামরিক জোট ন্যাটোর সৈন্য প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানাতেই তার এ সফর। এ খবর প্রকাশ করেছে সিএনএন ও বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও সামরিক জোট ন্যাটো। আগামী ১ মে থেকে এ প্রক্রিয়া শুরু হয়ে শেষ হবে ১১ সেপ্টেম্বর। বুধবার মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এ ঘোষণা দেন। একইদিন ব্রাসেলসে ন্যাটো জোটের সদস্যদের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে বৈঠক করেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিংকেন।

বৃহস্পতিবার কাবুলে পৌঁছেই তিনি প্রথমে সেখানে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাসে যান। এরপর দেশটিতে অবস্থানরত মার্কিন সেনাদের সাথে সাক্ষাত করেন। পরে আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনির সাথে সাক্ষাত করতে তার বাসভবনে যান। এ ছাড়া সংশ্লিষ্ট অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথেও সাক্ষাত করেন যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ এই কূটনীতিক।

তিনি বলেন, গতকাল বুধবার রাতে প্রেসিডেন্ট বাইডেনের ভাষণের পরে এত তাড়াতাড়ি আমার এখানে উপস্থিত হওয়ার কারণ, আফগানিস্তানের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের চলমান প্রতিশ্রুতি অব্যাহত থাকবে যে তা জানানো এবং সহমর্মিতা প্রদর্শন করা।

বিবিসি জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত প্রায় আড়াই হাজার মার্কিন সেনা ও সাড়ে ৯ হাজার ন্যাটো আফগান মিশনে অংশ নিতে দেশটিতে অবস্থান করছে।

বাইডেনের এই সিদ্ধান্তে কিছুটা নাখোশ মার্কিন ও ন্যাটো কর্মকর্তারা। তারা বলছেন, তালেবান একটি কট্টর ইসলামপন্থী দল। এখনও পর্যন্ত আফগানিস্তানে সহিংসতা হ্রাস করার বিষয়ে দেওয়া কোনো প্রতিশ্রুতি তারা রাখেনি। ফলে এখনই সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তকে যৌক্তিক মনে করছেন না তারা।

ইত্তেফাক/টিএ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x