করোনা যোদ্ধাদের জীবনবিমা প্রকল্প বন্ধ করে দিলো ভারত

করোনা যোদ্ধাদের জীবনবিমা প্রকল্প বন্ধ করে দিলো ভারত
ছবি: সংগৃহীত

ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দিনকে দিনকে রেকর্ড সংখ্যা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। রোগী এমনভাবে বাড়ছে যে তাদের সামাল দিতে বেগ পেতে হচ্ছে চিকিৎসক-নার্সদের। অনেক হাসপাতালে কোনো বেড খালি না থাকায় বিনা চিকিৎসাতেই ফিরে যেতে হচ্ছে রোগীদের। ঠিক এমন পরিস্থিতির মধ্যেই সম্মুখসারীর করোনা যোদ্ধা চিকিৎসক-নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য বরাদ্দ ৫০ লক্ষ টাকার জীবনবিমা প্রকল্প বন্ধ করে দিয়েছে বিজেপি নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকার। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে আনন্দবাজার।

সেখানে বলা হয়, রাজধানী নয়াদিল্লিসহ ভারতের অনেক শহরেই ইতিমধ্যে কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন অসংখ্য চিকিৎসক-নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মী। তবুও, তাদের অনেকেই আবারও ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন। অথচ এমন সময়ে মোদি সরকারের জীবনবিমা প্রকল্প বন্ধ করার এ সিদ্ধান্ত ব্যাপক সমালোচনার মুখে পরেছে।

এর আগে গত বছর মহামারি করোনার প্রভাবের শুরুর দিকে লকডাউন ঘোষণা দেওয়ার পরপরই চিকিৎসক-নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য ৫০ লক্ষ টাকার জীবনবিমা প্রকল্পের ঘোষণা দেয় কেন্দ্রীয় সরকার। মূলত যারা রোগীদের সেবা দিতে গিয়ে নিজেরা করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করছেন, তাদের পরিবারকে এ অর্থ দেওয়ার কথা। প্রকল্পের অধীনে এখন অবধি পুরো ভারতে ২৮৭ জন এ বীমার টাকা পেয়েছেন। কিন্তু চলতি বছরের ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত পাওয়া তথ্যমতে, ৪৮৯ জন চিকিৎসক-নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীর মৃত্যু হয়েছে।

২০২০ সালের ২৬ মার্চ কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন বলেছিলেন, সামনের সারিতে থাকা কর্মীদের অবদান সরকার ভোলেনি। সেই কারণেই এ প্রকল্প চালু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ৩০ মার্চ থেকে এটা চালু করা হয়। পরে মেয়াদ বাড়িয়ে ২০২১ সালের ২৪ মার্চ পর্যন্ত সময়সীমা নির্ধারণ করা হয়। এরপর সেটা আর বাড়ানো হয়নি। অথচ করোনার সবচেয়ে ভয়াবহ পরিস্থিতি এখন আরো বেশি ভয়াবহ হচ্ছে।

ইত্তেফাক/টিএ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x