মাস্ক পরা নিয়ে পুলিশের সঙ্গে বিতর্ক, অতঃপর জেলে

মাস্ক পরা নিয়ে পুলিশের সঙ্গে বিতর্ক, অতঃপর জেলে
ছবি: সংগৃহীত।

মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে নাজেহাল ভারত। সংক্রমণ রোধে বিভিন্ন রাজ্যে আরোপ করা হয়েছে কড়া বিধিনিষেধ। এর মধ্যে অন্যতম রাজধানী দিল্লি। সেখানে কঠোর বিধিনিষেধের পাশাপাশি উইকএন্ড কারফিউ জারি করা হয়েছে। কিন্তু সেসব নিয়মের তোয়াক্কা না করেই পুলিশের সঙ্গে বিতর্কে জড়িয়েছে দিল্লির এক দম্পতি। যার কারণে তাদের জেলেও যেতে হয়েছে।

জানা যায়, ঘটনাটি গত রোববার ঘটেছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ওই ঘটনার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। সেখানে দেখা যায়, পুলিশ ওই দম্পতিকে আটকানোর পর প্রবল চিৎকার জুড়ে দেন গাড়িতে বসে থাকা এক নারী। ওই নারীর বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে, তাকে গাড়ি সাইড করতে বলা হলে করোনার অস্তিত্ব নেই বলে দাবি করেন তিনি। এমনকি স্বামীকে পুলিশের সামনে চুমু খাবেন বলেও জানান তিনি।

এরপর সেখানে কর্মরত অফিসারদের উদ্দেশ্য করে অশ্রাব্য ভাষায় গালিগালাজ শুরু করেন ওই নারী। এক পুলিশ কর্মকর্তা বিষয়টি রেকর্ড করছেন দেখে তিনি বলেন, এই ভিডিও আপলোড করে দেখান আপনাদের ক্ষমতা কতদূর! আমিও একহাতে দেখে নেবো।

জানা গেছে, অভিযুক্তদের নাম পঙ্কজ দত্ত এবং আভা। করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ হয়ে ওঠায় সপ্তাহান্তে কারফিউ জারি করা হয়েছিল রাজধানী দিল্লিতে। তখন শুধু জরুরি সেবায় নিয়োজিত কর্মী এবং ই-পাস রয়েছে যাদের, তারাই বাড়ি থেকে বের হতে পারবেন, এমনটাই জানানো হয়েছিল।

পুলিশের দাবি, এই দম্পতির কাছে ই-পাস ছিলই না, এমনকি তারা মাস্কও পরেননি। যখন তাদের এ নিয়ে প্রশ্ন করা হয় তখনই চেচামিচি শুরু করে দেন আভা। তিনি দাবি করেন, করোনাভাইরাস বলে কোনও কিছুর অস্তিত্বই নেই। আপনারা আমাদের হেনস্থা করার চেষ্টা করছেন।

এক পুলিশ কর্মকর্তা এর প্রতিবাদ করতে গেলে আভা বলেন, বেশি বাড়াবাড়ি করলে আমি আমার স্বামীকে এখনই চুমো খাবো। দেখি আপনারা কী করতে পারেন! পরে থানা থেকে নারী পুলিশ কর্মীদের ঘটনাস্থলে আসতে বলা হয়। তারাই এই দম্পতিকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

ইত্তেফাক/টিআর

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x