ইসরায়েলি হামলা: শুধু পশ্চিম তীরেই নিহত ১১

ইসরায়েলি হামলা: শুধু পশ্চিম তীরেই নিহত ১১
ছবি: সংগৃহীত

পুরো ফিলিস্তিনজুড়েই ছড়িয়ে পড়েছে সংঘর্ষ। গত সোমবার থেকে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ক্রমাগত ইসরায়েলি হামলা দেশটিতে জন্ম দিয়েছে এক যুদ্ধ পরিস্থিতির। একই সময়ে বিক্ষোভ সামাল দিয়ে শুধু পশ্চিম তীরেই ১১ ফিলিস্তিনিকে গুলি করে হত্যা করেছে ইসরায়েলি দখলদার বাহিনী। এছাড়াও আরও অন্তত ৫০০ জন আহত হয়েছে।

সম্প্রতি গাজা উপত্যকায় অব্যাহত বিমান হামলা ও অগণিত মানুষের মৃত্যুর প্রতিবাদে শুক্রবার জুমার নামাজের পর পশ্চিম তীরের প্রায় ২০০ জায়গায় প্রচণ্ড বিক্ষোভ হয়। সেই বিক্ষোভ সামাল দিতেই পশ্চিম তীরে তল্লাশির নামে অভিযানে চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। সেনারা পশ্চিম তীরে ঢুকলে তরুণ ফিলিস্তিনিরা বিক্ষোভ শুরু করে এবং তাদের দিকে পাথর ও ককটেল নিক্ষেপ করে। এ সময় ইসরায়েলি সেনারা গুলি চালালে এসব হতাহতের ঘটনা ঘটে।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য অধিদফতর জানিয়েছে, তল্লাশির নামে অভিযানের প্রতিবাদে ফিলিস্তিনিরা বিক্ষোভ করলে সেখানে তাদের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় ইসরায়েলি বাহিনীর। এ সংঘর্ষে ১০ ফিলিস্তিনি গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান। ইয়াবেদের কাছে জেনিন নামের এলাকায় ইসরায়েলি বাহিনীর অবৈধ স্থাপনার পাশে এক সৈন্যকে ছুড়িকাঘাত করতে গেলে সেখানে আরেক ফিলিস্তিনি গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান।

এদিকে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় হামলা অব্যাহত রেখেছে ইসরায়েলি দখলদার বাহিনী। গত সোমবার থেকে এ অঞ্চলে একের পর এক বোমা হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি জঙ্গি-বিমান। পাশাপাশি এবার স্থল আক্রমণ শুরু করেছে ইসরায়েলি দখলদার বাহিনী। গত বৃহস্পতিবার স্থানীয় রাত থেকেই আকাশপথের পাশাপাশি স্থলপথেও হামলা চালানো হচ্ছে।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানায়, ইসরায়েলি বোমা হামলায় এখন পর্যন্ত ৩১ শিশু ও ২০ নারীসহ নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১২৬ জনে। আজও নতুন করে ১৩ জন ফিলিস্তিনি নিহত হন। এছাড়াও আহত হয়েছেন অন্তত ৯২০ ফিলিস্তিনি।

জানা যায়, ইসরায়েলে হওয়া ক্ষেপণাস্ত্র হামলা প্রতিরোধে শুক্রবার বিভিন্ন সামরিক স্থাপনা লক্ষ্য করে হামলা চালানো হয়। ৪০ মিনিট ধরে চলা এ হামলায় নতুন করে আরও নিহতদের মধ্যে তাদের মধ্যে এক মা ও তার তিন শিশু ছিলেন। ধ্বংসস্তূপ থেকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

গাজা উপত্যকায় ইসরায়েল দখলদার বাহিনীর অব্যাহত বিমান হামলা ও অভিযানের মুখে আতঙ্কে জীবন বাঁচাতে বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছে ফিলিস্তিনিরা। এখন পর্যন্ত প্রায় ১০ হাজার ফিলিস্তিনি নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে বাড়ি ছেড়েছেন বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ।

ইসরায়েলি বাহিনী জানিয়েছে, গত কয়েকদিনে ফিলিস্তিনে যত হামলা চালানো হয়েছে তার ৯৫ শতাংশই ছিল আকাশপথে বা জঙ্গি বিমান হামলা। স্থানীয় ফিলিস্তিনিরা বলছে, ইসরায়েলি বাহিনীর হামলার অধিকাংশ লক্ষ্যবস্তু আবাসিকভবনগুলো। বোমা হামলা ছাড়াও ইসরায়েলি জঙ্গি বিমান থেকে আবাসিকভবন লক্ষ্য করে গুলি চালানো হচ্ছে। ফলে প্রাণ বাঁচাতে বাড়ি ছাড়ছেন তারা।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x